HEADLINE
পরিবারের সবাইকে অজ্ঞান করে ১০ লক্ষ টাকার মালামাল লুট! বাংলাদেশের মেয়েরা এখন আর পিছিয়ে নেই এমপি রুহুল হক ভোমরায় পাসপোর্ট যাত্রীদের তল্লাশির নামে বিজিবির হয়রানি সাতক্ষীরা পৌরমেয়র চিশতিসহ পৌর বিএনপির ১০ নেতা আটক শাশুড়ির কামড়ে জামাইয়ের কান ও জামাইয়ের কামড়ে শাশুড়ির হাতের শিরা বিছিন্ন কালিঞ্চী এ. গফ্ফার মাধ্যঃ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন বন্দে আদালতে মামলা বৈকারীতে ১’শ পিস ইয়াবাসহ চোরাকারবারি গ্রেপ্তার রাত পোঁহালেই দেবহাটা প্রেসক্লাবের নির্বাচন সাতক্ষীরায় ছাত্রলীগ নেতাকে অস্ত্রকান্ডে ফাঁসিয়ে ভারতে পালালেন মূলহোতা নির্বাচন নিয়ে ভাবার কিছু নেই, আমরা গণতান্ত্রিক দল : সাতক্ষীরায় আ.ক.ম মোজাম্মেল হক
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন

দিনভর নাটকীয়তা, ভোমরা সিএনএফ এর মনোনয়ন বিক্রি পুলিশি বাধায় পন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৪২২
প্রকাশের সময় : সোমবার, ৯ মে, ২০২২

দিনভর সঠতা ও নাটকীয়তায় শেষ হলো ভোমরা সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের নির্বাচনের মনোনয়ন কেনার দিন। পুলিশ প্রহরায় মনোনয়ন প্রার্থী কাউকে নির্বাচন কমিশন অফিসে ঢুকতে না দেওয়ায় মনোনয়ন ফরম কেউ কিনতে পারেননি। এ নিয়ে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে সিএন্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের মধ্যে। সদস্যদের একটি অংশ প্রতিজ্ঞা করেছেন নির্বাচন না হলে একটি টাকাও এজেন্টস এসোসিয়েশনের জমা দেবেন না তারা।আজ ৯ মে সোমবার সকাল ৯ টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত ভোমরা সিএন্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের ভবনে স্থাপিত নির্বাচন কমিশনারের  কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম বিক্রির কথা ছিল।  মনোনয়ন ফরম ক্রয় করতে এ সময় সেখানে একে একে হাজির হন বর্তমান আহ্বায়ক মিজানুর রহমান, সাবেক সভাপতি নাসিম, রামকৃষ্ণ চক্রবর্তী, সান্টু  চৌধুরী পানি ডাক্তার, অহিদুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম, এজাজ আহমেদ স্বপনসহ আরো কয়েকজন। এ সময় এসোসিয়েশনের ভবনের দায়িত্বে থাকা একদল পুলিশ সদস্য  তাদের ঢুকতে না দিয়ে বাইরে থেকে ফিরিয়ে দেয়। এ সময় তারা নির্বাচন কমিশনারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। এছাড়াও নির্বাচন কমিশনার তার কার্যালয়ে ছিলেন না বলে জানায় এসোসিয়েশনের একাধিক কর্মচারী ।  শুধু তাই নয় আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক সদস্যদেরকেও ভবনে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এ নিয়ে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে ব্যবসায়ীদের মাঝে। সাধারণ ব্যবসায়ীরা বলছেন এসোসিয়েশনের সকল ধরনের ফি দেওয়া  বন্ধ করে দিবেন। এদিকে গুজব উঠেছে সাবেক সভাপতি নওশাদ দিলওয়ার রাজু ও বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব এএসএম মাকসুদ খানকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করার জন্য এ নাটকীয়তা চলছে। অভিযোগ উঠেছে বিপুল পরিমাণ অর্থ লেনদেনের মাধ্যমে এ পাতানো নির্বাচন প্রক্রিয়া চলছে। মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করতে আসা ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম জানান, আমি মনোনয়ন ফরম কিনতে এসেছি। কিন্তু বারবার চেষ্টা করেও পুলিশ সদস্যদের বাধার মুখে ভিতরে ঢুকতে ব্যর্থ হয়েছি। এখানে পাতানো নির্বাচন হবে।সিএনএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের বর্তমান আহ্বায়ক মিজানুর রহমান বলেন, বারবার চেষ্টা করেও আমি ভবনের ভেতরে কার্যালয়ে যেতে পারিনি। পুলিশি বাধার মুখে ফিরে আসতে আমি বাধ্য হই।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ