HEADLINE
কালিঞ্চী এ. গফ্ফার মাধ্যঃ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন বন্দে আদালতে মামলা বৈকারীতে ১’শ পিস ইয়াবাসহ চোরাকারবারি গ্রেপ্তার রাত পোঁহালেই দেবহাটা প্রেসক্লাবের নির্বাচন সাতক্ষীরায় ছাত্রলীগ নেতাকে অস্ত্রকান্ডে ফাঁসিয়ে ভারতে পালালেন মূলহোতা নির্বাচন নিয়ে ভাবার কিছু নেই, আমরা গণতান্ত্রিক দল : সাতক্ষীরায় আ.ক.ম মোজাম্মেল হক কুলিয়ায় পানিতে ভাসছে কাফনের কাপড় পরিহিত লাশ সাতক্ষীরায় দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা: তদন্ত পিবিআইতে সাতক্ষীরায় খোলপেটুয়া নদীর বেড়ী বাঁধ ভেঙে এলাকা প্লাবিত কলারোয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ২৫ ইভটিজিং প্রতিরোধে আমাদের করণীয়
রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৬:৩৪ অপরাহ্ন

সাতক্ষীরায় সম্পত্তির লোভে গর্ভধারিনী মাকে ভিটেছাড়া করতে মরিয়া ৫ ছেলে!

দেবহাটা প্রতিনিধি / ২৮৩
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৬ মে, ২০২২

সাতক্ষীরার দেবহাটায় বাবার মৃত্যুর আগে রেখে যাওয়া সম্পত্তি জবরদখলের লোভে রাবেয়া বেগম নামের এক গর্ভধারিণী বৃদ্ধ মায়ের ঘর ভেঙে মাকে ভিটেছাড়া করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন ৫ পুত্রসন্তান। ঘটনাটি উপজেলার সখিপুর ইউনিয়নের চক মোহাম্মাদালীপুর গ্রামের। ভুক্তভোগী বৃদ্ধা চক মোহাম্মাদ আলীপুর গ্রামের মৃত আরিজুল্লাহ গাজী ওরফে আদু’র স্ত্রী। এনিয়ে একাধিকবার পুত্রদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েও আশানুরূপ কোন ফল পাননি ওই হতভাগা মা। প্রতিবারই থানা থেকে শালিস বৈঠকের মাধ্যমে মিমাংসা করে দেয়া হলেও, কয়েকদিন যেতে না যেতে আবারো ওই মায়ের প্রতি নির্যাতন শুরু করেন তার পুত্র সন্তান ও পুত্রবধূরা। সম্প্রতি মায়ের কুঁড়েঘরটি ভেঙে সেখানে পাকা ঘর বাধছেন মেজ ছেলে রেজাউল করিম। আর মাকে তার ঘর থেকে বের করে বাড়ির অদূরে বাশবাগানের কাছাকাছি বাবার কবরস্থানের পাশে আরেকটি ঝুপড়ি ঘর বেধে সেখানে আশ্রয় দেয়ার পরিকল্পনা আটছেন ৫ ছেলে। শুধু তাই নয়, মৃত্যুর আগে দেনমোহর বাবদ মায়ের নামে বাবার লিখে দেয়া ১৫ শতক জমিও ফেরত নিতে বাবা-মায়ের দলিলের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা ঠুকে দিয়েছেন মানুষরূপী এসব অমানুষ সন্তানেরা। গর্ভের সন্তানদের এমন আচরণে বর্তমানে বুকভরা কষ্ট ও চোখের পানি ঝরিয়ে সুবিচারের আশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন ওই হতভাগা মা রাবেয়া খাতুন। সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় মায়ের বর্তমান বসবাসের কুঁড়ে ঘরটির কিছু অংশ ভেঙে ফেলে সেখানে নতুন ঘর বাঁধছেন ছেলে মেজ ছেলে রেজাউল। এসময় সাংবাদিকদের দেখেই মায়ের ওপর চটে যান তিনি। কান্নাজড়িত কন্ঠে বৃদ্ধ মা রাবেয়া খাতুন জানান, সংসারিক জীবনে তাদের ৫ পুত্র সন্তান ও ৩ কন্যাসন্তান আছে। তার স্বামী মৃত আরিজুল্লাহ গাজীর ৩৯ শতক জমি ছিল।  দেনমোহর বাবদ ২০০৭ সালে ১৫ শতক জমি তিনি রাবেয়া খাতুনের নামে লিখে রেজিষ্ট্রি দলিল করে দিয়ে যান। ২০১৭ সালে তার স্বামীর মৃত্যুর পর ওই ১৫ শতক জমি দখলে নিতে মরিয়া হয়ে ওঠে ৫ ছেলে মনিরুল ইসলাম, রেজাউল করিম, রফিকুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম ও রবিউল ইসলাম। তারা মায়ের নামে বাবার লিখে দেয়া জমির দলিলকে ‘জাল দলিল’ বলে প্রচার দিতে থাকে। পাশাপাশি মাকে তার বসবাসের কুড়ে ঘর থেকে বের করে সেই জমিও দখলে নিতে নানা অপচেষ্টা চালাতে থাকে ছেলেরা। এনিয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে বৃদ্ধ মা ও বোনেদের ওপর তারা বিভিন্ন সময়ে নির্যাতন চালিয়ে আসছে বলেও অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। বর্তমানে ছেলেদের দ্বারা নির্যাতিত এবং আশ্রয়হীন হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন মা রাবেয়া খাতুন। সুবিচারের জন্য পুলিশ সুপারের হস্তাক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ