শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৪৪ পূর্বাহ্ন

বিনেরপোতায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৫৯৩
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৮ জুন, ২০২২

নদী খননের মাটি ট্রাক্টর থেকে পড়ে সাতক্ষীরা সদরের বিনেরপোতা সড়কটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। সাতক্ষীরা সদরে অ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও একজন আহত হয়েছেন। শুক্রবার (১৭ জুন) রাত সাড়ে ৯টার দিকে সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের বিনেরপোতায় আব্দুর রহমান কলেজের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন সদর উপজেলার পলাশপোল এলাকার সাহা কাদেরের ছেলে বজলুর রহমান (৫৫) ও একই এলাকার মইন আলীর ছেলে আব্দুস সালাম (৪২)। আহত হাফিজুর রহমান (৪৫) একই এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সাতক্ষীরা সদরের বিনেরপোতা সড়ক দিয়ে নদী খননের মাটি ট্রাক্টরযোগে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ট্রাক্টর থেকে মাটি পড়ে বৃষ্টিতে সড়ক কাদাযুক্ত হয়ে যায়। শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আব্দুর রহমান কলেজের সামনে কাদাযুক্ত সড়কে পিছলে পড়ে যান মোটরসাইকেলের তিন আরোহী। এ সময় তাদের ধাক্কা দেয় একটি অ্যাম্বুলেন্স। এতে মোটরসাইকেলের তিন আরোহী আহত হন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে বজলুর রহমানকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুস সালাম নামে আরও একজন মারা যান।

স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বেতনা নদী খননের মাটি সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়ক দিয়ে বহনের ফলে রাস্তায় মাটি পড়ে ধুলাবালুতে পরিণত হচ্ছে। বৃষ্টি হলেই কাদাযুক্ত হয়ে যায়। এতে প্রতিদিনই ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা। এতদিন মানুষজন আহত হলেও আজ দু’জন প্রাণ হারিয়েছেন। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।

সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিশ্বজিৎ অধিকারী বলেন, বজলুর রহমান, আব্দুস সালাম ও হাফিজুর রহমান ব্যক্তিগত কাজ শেষে পাটকেলঘাটা থেকে মোটরসাইকেলে সাতক্ষীরায় ফিরছিলেন। বিনেরপোতা এলাকায় দ্রুতগামী একটি অ্যাম্বুলেন্স তাদের মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে তিন জন আহত হন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে দু’জনের মৃত্যু হয়। অপরজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ