HEADLINE
পরিবারের সবাইকে অজ্ঞান করে ১০ লক্ষ টাকার মালামাল লুট! বাংলাদেশের মেয়েরা এখন আর পিছিয়ে নেই এমপি রুহুল হক ভোমরায় পাসপোর্ট যাত্রীদের তল্লাশির নামে বিজিবির হয়রানি সাতক্ষীরা পৌরমেয়র চিশতিসহ পৌর বিএনপির ১০ নেতা আটক শাশুড়ির কামড়ে জামাইয়ের কান ও জামাইয়ের কামড়ে শাশুড়ির হাতের শিরা বিছিন্ন কালিঞ্চী এ. গফ্ফার মাধ্যঃ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন বন্দে আদালতে মামলা বৈকারীতে ১’শ পিস ইয়াবাসহ চোরাকারবারি গ্রেপ্তার রাত পোঁহালেই দেবহাটা প্রেসক্লাবের নির্বাচন সাতক্ষীরায় ছাত্রলীগ নেতাকে অস্ত্রকান্ডে ফাঁসিয়ে ভারতে পালালেন মূলহোতা নির্বাচন নিয়ে ভাবার কিছু নেই, আমরা গণতান্ত্রিক দল : সাতক্ষীরায় আ.ক.ম মোজাম্মেল হক
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন

সমাজ পরিবর্তনে আর্দশ রাজনীতির বিকল্প নেই

রাজু ঘোষ / ৭৫৪
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৫ আগস্ট, ২০২১

এদেশের এই সমাজের নষ্টের বা ক্ষতির মূল ওস্তাদ সুশীল রুপি গডফাদারেরা। যারা মানুষকে দিনের পর দিন ব্যবহার করে পুরো সমাজ ব্যবস্হা’কে ধ্বংস করে ফেলেছে। যদি সে ধার্মিক সুশীল হয় তবে সে আপনাকে ধর্মের জ্ঞান দিবে সুমুধুর কণ্ঠে অথচ সে নিজেই অর্ধামিক, যদি সে উচ্চমাপের কর্মকর্তা হয় তবে সে সুদ ঘুষ এসবের বিপরীতরূপ সম্পর্কে বোঝাবে! কিন্তু উপরি ইনকামের জন্য মানুষ তাকে শ্রদ্ধা করে তার নাম ডাক এত। যদি সে আইনজ্ঞ হয় আপনাকে উপদেশ দিবে আইন অমান্য না করার জন্য অথচ নিজে আইনের সমস্ত ধারা বিলুপ্তি করে তার অবৈধ ইনকামে সে তার স্ট্যাটাস বজায় রাখছে এভাবে প্রত্যেক সেক্টরে আজ ভঙ্গুর মানুষদের জয়-জয়াকার। তাদের সিন্ডিগেটের বাইরে যেসব মানুষ সমাজ পরিবর্তনের স্বপ্ন নিয়ে কাজ করে তারা সেসব সেক্টরে তাদের সহকর্মীদের কাছে নিতান্ত বোকা হিসাবে গণ্য হয়। আচার আচারনে দেবতা হলেও মনের ভিতরে থাকে এদের দ্বিচারিতা আর এই মুখোশ পরেই তারা আজকের এই পচনশীল সমাজের রুপকার। তারা সব সময় নিজেদের ধরা ছোয়ায় বাইরে রেখে নিজেদের সেফটি ফার্স্ট নীতি গ্রহন করে এই সমাজে সমাদৃত হয়। এটাই তাদের আসল পরিচয়, দিনবদলের স্বপ্ন নিয়ে যেসব মানুষ একই পথের পথিক হয় তারা হয় বোকা না হয় মানুষের চোখে মাস্তান হিসাবে আবির্ভুত হয় অথচ এসব মাস্তান তৈরি করার কারিগর ঐসব সুশীল রুপি ভন্ড গডফাদারেরা। যারা সমাজকে বিভক্তি করে মানুষ কে ব্যবহার করে জনগণের সম্পদ লুটপাট করছে দেদারচ্ছে, মানুষের সচেতনাহীনতা কিংবা সুনাগরিক হওয়ার দায়িত্ববোধ কমে যাওয়ায় তাদের রুপরেখা বাস্তবায়ন অনেক দীর্ঘস্হায়ী হয়। অর্থ সবকিছুর বিচার করলে সমাজের সামাজিকতা থাকে না, বিচার থাকে না, অনিয়ম নিয়ম হয়। এটাই ধ্বংসের কারণ হয়।অর্থ মানুষের জীবন ধারণের জন্য অবশ্যই প্রয়োজন সমাজ বদলানোর জন্য সেটা আবশ্যিক। তার অর্থ এই নয় যে অর্থশালী কিংবা ক্ষমতাশালী মানুষেরা আইনের বাইরে সমাজের বাইরে। বিচার হওয়া উচিত অন্যায়ের দূনির্তির ঘুষের অপরাধের। ছোট ছোট টোকাই চোরদের সাজা দিয়ে সমাজ পরিবর্তন হয় না। এর জন্য মুখোশধারী সুশীলরুপি ঐ গডফদারদের বিচার করলে আইন আসলেই সবার জন্য বলে বিবেচিত হবে। নতুবা কালের বিবর্তনে একটা চোখ থাকিতে অন্ধ প্রজন্ম তৈরি হবে। সেটারও অবক্ষয় চোখের সামনেই ঘটতে থাকবে। বস্তুত যারা সমাজ পরিবর্তনের জন্য আসলেই আর্দশিক রাজনীতি করে সামাজিক পরিবর্তনটা তাদের হাত ধরেই হওয়া উচিত।কোন মাস্তান তৈরির গডফাদারদের দ্বারা সমাজ প্রবাহিত হলে তার নৈতিক বিপর্যয় ঘটে। প্রত্যেক সেক্টরে মানুষের দৈনন্দিন জীবনে এমন কোন সেক্টর নাই যেখানে এমন দ্বিচারিতার মানুষ নাই। তাই আমাদের উচিত তাদের মুখোশ উন্মোচন করে সমাজ পরিবর্তনে সত্যিকারের আর্দশ রাজনীতিতে ফিরিয়ে আনতে তাদের সাহায্য করা। নৈতিক মানুষদের জয় হোক, জয় বাংলা।

লেখকঃ রাজু ঘোষ

ছাত্রনেতা


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ