HEADLINE
সাতক্ষীরা সীমান্তে অপরাধ দমনে বিজিবি ও বিএসএফ এর পতাকা বৈঠক ঝাউডাঙ্গা হাইস্কুল জামে মসজিদের ওযুখানা নির্মাণ কাজ উদ্বোধন শ্যামনগরে বিদ্যুৎস্পর্শে কৃষকের মৃত্যু কাশ্মিরি ও থাইআপেল কুল চাষে সফল সাতক্ষীরার মিলন ঝাউডাঙ্গা সড়কে বাস উল্টে ১০জন আহত ঝাউডাঙ্গায় জমকালো আয়োজনে শুরু হচ্ছে পৌষ সংক্রান্তি মেলা কালিগঞ্জে শীতার্ত মানুষের পাশে ”বিন্দু” মাদ্রাসা শিক্ষক শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে ফের ছাত্র বলাৎকারের অভিযোগ স্বামী বিবেকানন্দ দর্শন আমাদের মুক্তির পথ : সাতক্ষীরায় ১৬০তম জন্মবার্ষিকী উৎসবে আলোচকরা আ’লীগ নেতার বাড়িতে ডাকাতি, ১৫ লাখ টাকা ও ৩৪ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট 
শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:০১ অপরাহ্ন

ঝাউডাঙ্গায় ইউপি নির্বাচনে মোটরসাইকেল প্রতীকের সমর্থকদের মারপিটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৬৫২
প্রকাশের সময় : শনিবার, ৬ নভেম্বর, ২০২১

১১ই নভেম্বর আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নে প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পারছে প্রার্থীরা। এরই মধ্যে শনিবার (৬ নভেম্বর) সকালে উত্তর পাথরঘাটার গোলদার পাড়া ও দক্ষিণ পাথরঘাটা এলাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের লিফলেট ছিনিয়ে নেয়া ও কর্মী সমর্থকদের মারপিট করার অভিযোগ উঠেছে নৌকা প্রতীকের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এই ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ঝাউডাঙ্গা ইউপির মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুল ইসলাম বলেন, সকালে সাত-আটজন আমার কর্মী সমর্থক উত্তর ও দক্ষিণ পাথরঘাটা এলাকায় লিফলেট বিতরণের জন্য যায়। উত্তর পাথরঘাটার গোলদারপাড়ায় লিফলেট বিতরণকালে হঠাৎ আচমকা নৌকা প্রতীকের সমার্থক আব্দুল মাজেদ, তানজের মাষ্টার, ফজলুসহ কয়েকজন আমার কর্মী সমার্থক আব্দুল হামিদ শেখ, হালিমা, চায়না, জাহানারা, তারা বানুসহ কয়েকজনকে মারপিট করে তাদের কাছে থাকা লিফলেট ও মহিলাদের কাছে থাকা ব্যাগ পুকুরের পানিতে ছুড়ে ফেলে দেয় ও তাদেরকে হুমকি ধামকি দেয়। ঘটনা জানা মাত্রই তাৎক্ষণিক আমি প্রশাসনকে অবহিত করেছি। তাছাড়া এঘটনায় থানায় এজাহার দায়ের প্রস্তুতি চলছে। শুধু অবাধ, সুষ্ঠু বিচার ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন তিনি। তবে নৌকা প্রতীকের সমার্থকেরা এসব অভিযোগ অস্বীকার ও মিথ্যা বলে আখ্যায়িত করেছেন।

এবিষয়ে জানতে ঝাউডাঙ্গা ইউপির নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আজমল উদ্দিনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও একাধিকবার ফোন দিয়েও তার ফোন রিসিভ হয়নি। সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হুসেন জানান, ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থলসহ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেছেন। কোনো সংঘাতে না জড়ানোর জন্য উভয় নির্বাচনী প্রার্থী ও কর্মী সমার্থকদের শান্ত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ