HEADLINE
চাকরি ও বাসস্থানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট প্রতিবন্ধী তরিকুলের আকুল আবেদন সাতক্ষীরার জনপ্রিয় ফেসবুক গ্রুপ ‘ড্রিম সাতক্ষীরা’ প্রথম বারের মতো ফটোকনটেস্টর আয়োজন কেশবপুরে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন শ্যামনগরে নৌ-পুলিশের অভিযানে বালখেট জব্দ, ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা কেশবপুরে ইট ভাটা মালিকের সংবাদ সম্মেলন সারাদেশে নদীভাঙন রোধে পর্যায়ক্রমে স্থায়ী প্রকল্প হচ্ছেঃ এনামুল হক শ্রীউলায় আন্তক্রিড়া প্রতিযোগিতার শুভ উদ্বোধন বলাডাঙ্গায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এক বৃদ্ধাকে অপহরণের অভিযোগ ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রেক্ষাপট শ্যামনগরে বিদ্যুৎ স্পর্শে তরুণ স্বেচ্ছাসেবক মেহেদী হাসান’র মৃত্যু
শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০১:৫৮ অপরাহ্ন

যুদ্ধ

কবিঃ অহিদুজ্জামান টনি / ২৮৩
প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৩ মার্চ, ২০২২

কবিঃ অহিদুজ্জামান টনি

আমি দেখিনি যুদ্ধ,
যায় নি তো যুদ্ধে।
লড়াই করিনি শত্রুর বিরুদ্ধে,
শুধু গুরুজনের মুখে শুনেছি।

ইতিহাসের পাতায় পড়েছি,
আমি কল্পনায় যুদ্ধের ছবি এঁকেছি।
কখনো চোখের জলে বুক ভাসিয়েছি,
কখনো আনন্দে মেতেছি।

আমি শুনেছি এক অপেক্ষায় থাকা মায়ের কথা,
যার বুক ভরা সন্তান না ফেরার বেথা।
এক বিধবা বধূর স্বামী হারা কান্না,
লক্ষ বাঙালির রক্তের বন্যা।

পিতা হারা সন্তানের প্রতিশোধের আকাঙ্ক্ষা,
সেই অসহায় বালক যার নিস্পাপ সত্তা।
মানুষের স্বাধীনতা দেখবার কামনা,
লাশের পাশে শকুনের ডাক।

এসে বসেছে ঝাক ঝাক,
এমন সময় বাংলার বুকে এক সংগ্রামী নেতা।
যে এসে দিলো স্বাধীনতার ঘোষণা,
তার নাম ইতিহাসের পাতায় পাতায় গাঁথা।

তার একটি বাক্য দিয়েছিলো শত্রুর বুক কাঁপিয়ে,
বাঙ্গালী পড়েছি শত্রুর বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে।
তাঁর দীর্ঘ নয় মাস যুদ্ধের পরে,
স্বাধীন বাংলা পেলাম ফিরে।

মুছে যায় মায়ের কান্না,
থেকে যায় সন্তান না ফেরার বেথা।
আমরা সেই বীর যোদ্ধাদের কখনো ভুলবো না,
তোমরা থাকবে প্রতিটি বাঙালির হৃদয়ে।

তোমরা থাকবে প্রতিটি বাঙালির স্বপ্নে,
তোমরা থাকবে এ দেশের জামিনে আসমানে,
তোমরা চিরকাল বাংলায় বেঁচে রবে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ