দিনাজপুরে শ্বাসরোধে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী আটক

দিনাজপুরে শ্বাসরোধে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী আটক

দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায় যৌতুকের ৫০ হাজার টাকার জন্য স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় স্বামী গৌরাঙ্গ চন্দ্র মহন্তকে আটক করেছে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ।

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার খলিলপুর ঠাকুরপাড়া গ্রামের স্মরণী কান্ত মহন্তের আজ থেকে ১৩ বছর বয়সে বিয়ে হয়েছিল। এতদিন সংসার করার পর যৌতুকের ৫০ হাজার টাকার জন্য নিজের স্বামীর কাছে জীবন দিতে হল স্মরণী কান্ত মহন্তকে।
স্মরণী কান্ত মহন্ত ফুলবাড়ী উপজেলার খলিলপুর ঠাকুরপাড়া গ্রামের মুকুল চন্দ্র মহন্তের মেয়ে। তার বিয়ে হয় একই উপজেলার পার্শ্ববর্তী মাদিলাহাট চিন্তামন মাহালিপাড়ার গোপাল চন্দ্র মহন্তের ছেলে গৌরাঙ্গ চন্দ্র মহন্তের সাথে।

স্মরণী কান্ত মহন্তের পরিবার জানায়, শনিবার (১৬ মে) রাত ১টার দিকে নিজ বাড়িতে যৌতুকের টাকার দাবিতে স্বামী গৌরাঙ্গ চন্দ্র মহন্ত অমানুষিক নির্যাতন করে স্ত্রী স্মরণী কান্ত মহন্তের উপর। রাতেই নির্যাতনের এক পর্যায়ে স্মরণী কান্ত মহন্ত মৃতুবরণ করেন।
এই ঘটনাটি জানাজানি হলে আজ (রবিবার) সকালে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘাতক স্বামীকে আটক করতে সক্ষম হয়।

এ বিষয়ে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ফখরুল ইসলাম জানান, ‘‘১২ বছর পূর্বে স্মরণীর সাঙ্গে গৌরাঙ্গের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। পারিবারিক জীবনে তাদের ১১ বছর ও ৬ বছর বয়সের ২টি মেয়ে সন্তান রয়েছে। ঘাতক স্বামী গৌরাঙ্গ দীর্ঘদিন ধরে ৫০ হাজার টাকা যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে আসছিল।এরই প্রেক্ষিতে গত শনিবার (১৬ মে) রাত ১টার দিকে যৌতুকের জন্য স্ত্রী স্মরণী কান্তকে নির্যাতন করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

তিনি আরও জানান, রবিবার (১৭ মে) সকালে আমরা অভিযান চালিয়ে ঘাতক স্বামী গৌরাঙ্গ চন্দ্র মহন্তকে আটক করি। আটকের সময় সে যৌতুকের কারণে স্ত্রীকে নির্যাতন করে হত্যার ঘটনা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।
মেয়েকে হত্যার দায়ে নিহত স্মরণী কান্ত মহন্তের বাবা মুকুল চন্দ্র মহন্ত ফুলবাড়ী থানায় একটি হত্যা মামলা করেছে বলেও জানান পুলিশ।

এই সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

%d bloggers like this: