শ্যামনগরের গাবুরায় সুইচ গেটের ভেঙ্গে শত শত বিঘার চিংড়ী ঘের ও পুকুর প্লাবিত

শ্যামনগরের গাবুরায় সুইচ গেটের ভেঙ্গে শত শত বিঘার চিংড়ী ঘের ও পুকুর প্লাবিত

এস এম সাহেব আলী, শ্যামনগর:: সুইচ গেটের পাট ভেঙ্গে শত শত জনসাধারনে মাঝে আতংক বিরাজ করছে এই ঘটনা ঘটে শ্যামনগর উপজেলার দ্বীপবেষ্টিত ১২ নং গাবুরা ইউনিয়নে ৭নং ওয়ার্ডে ডুমুরিয়া রাজার সংলগ্ন পানি উন্নয়ন বোডের রাস্তায় নির্মাধিন সুইচ গেটের পাট গত কাল (২রা আগষ্ট) রাত্রে ১০ টায় জনমানব এই বিছিন্ন জনপদ গাবুরায় ঘুমে বিভোর ঠিক তখনি সুইচ গেটের পাট ভেঙ্গে জোয়ারের পানি লোকালয় প্রবেশ করতে থাকে । রাত্র ১০ টা হতে রাত্র ৪ টা পর্যন্ত প্রায় ৬ঘন্টা পানি প্রবাহ চলমান থাকায় , এই এলাকার শত শত বিঘা চিংড়ী ঘের ডুবে যাওয়ায় ঘেরের মাছ বিভিন্ন স্থানে চলে যায়, ডুমুরিয়া সুইচ গেট সংলগ্ন রাস্তা পাশে মাছ চাষাধীন পুকুর গুলোও প্লাবিত হয়। বিশেষ করে মিঠা পানির পুকুর গুলো লোনা পানিতে প্লাবিত হয় স্থানীয় জনসাধারন বেশী দুর্ভোগে পড়ে। রাত্র যত গভীর হয় পানি প্রবেশের গতিবিধি লক্ষ করে বৃদ্ধা শিশু সহ সবাই পাউবো রাস্তায় অবস্থান শুরু করতে থাকে বলে স্থানীয় সুত্রে জানা যায়। গাবুরায় ডুমুরিয়া সুইচ গেটেরর পাট ভেঙ্গে যাওয়া সংবাদটা জনসাধারনের মাঝে আইলার মত প্রলয়কারী দুর্যোগের মত আতংক সৃষ্টি হয়। গত রাত্রে সুইচ গেটের পাট ভেঙে যাওয়ার বিষয় সম্পর্কে স্থানীয় কয়েক ব্যাক্তি মধ্যে ৫২ নং ডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ইস্রাফিল হোসেন বলেন, রাত্র ১০টা হতে রাত প্রায় ৪টা পর্যন্ত পানি লোকালয় প্রবেশ করায় এলাকার জীবনজীবীকার মাছের ঘের গুলো পানিতে প্লাবিত হওয়ায় তুলনা হীন ক্ষতি হয়েছে। তবে রাস্তার পাশে মিষ্টি পানির পুকুর গুলো লোনা পানি ঢুকে যাওয়ায় মারাত্মকভাবে ক্ষতি হয়েছে। স্কুল শিক্ষার্থী বিলকিস বলেন, রাত্রে যখন শোনা গেল সুইচ গেটের পাট ভেঙ্গে ডুমুরিয়া খালে পানি প্রবেশ করছে জনসাধারনের মাঝে আতংক শুরু হয়ে গেল আমরা রাত্রে ঘুমাতে পারিনি। ডুমুরিয়া গেট সংলগ্ন বসবাসরত মহসীন আলীর স্ত্রী মমতাজ বেগম জানান, রাত্রের এই পানি প্রবেশের কারনে আজ শনিবার ডুমিরিয়া সপ্তাহিক বাজারে রাত্রে পানি উঠার কারনে দোকানীরা ঠিক মত বেচাকেনা করতে পারিনি। আমাদের প্রাণের দাবী গেটির টেকসই ব্যবস্থা গ্রহনের উদ্দ্যোগ নিলে জনসাধারন এই আতংকের হাত থেকে বাঁচতে পারে। ডুমিরিয়া সুইচ গেটের মাধ্যমে শত শত বিঘা জমি চিংড়ী চাষের পরিচালানায় জনসাধারন জীবনজীবী নির্বাহ করে । এই গেটটি সংস্কারক হলে মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারবে, সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট গেটের সু ব্যবস্থার দাবী করে স্থানীয় জনসাধারন।

এই সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন