শ্যামনগরে বাকপ্রতিবন্ধী যুবতী ধর্ষণের শিকার: ইউএনওর ড্রাইভার আটক

শ্যামনগরে বাকপ্রতিবন্ধী যুবতী ধর্ষণের শিকার: ইউএনওর ড্রাইভার আটক

বিশেষ সংবাদদাতা: সাতক্ষীরার শ্যামনগরে ১৯ বছরের এক বাকপ্রতিবন্ধী যুবতী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। বাকপ্রতিবন্ধী ওই যুবতী শ্যামনগর মহসীন ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী।
এ ঘটনায় পুলিশ শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের গাড়ি চালক লম্পট আব্দুল গফফারকে আটক করেছে। শনিবার সন্ধ্যায় শ্যামনগর উপজেলা সদর থেকে তাকে আটক করা হয়। আব্দুল গফফার শ্যামনগর উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের মৃত গহর আলী গাইনের ছেলে।
এদিকে এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা আকলিমা বেগম বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
পুলিশ ও ধর্ষিতার স্বজনরা জানায়, গাড়ি চালক আব্দুল গফফার শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাসভবন এর পিছনে একটি সরকারি কোয়ার্টারে একা থাকতেন। সেখানে আজ দুপুরে তার বাড়ি থেকে তার জন্য ভাত নিয়ে যায় বাকপ্রতিবন্ধী ওই যুবতী। সেখানে তাকে একা পেয়ে আব্দুল গফফার জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে। পরে বিষয়টি বাড়িতে গিয়ে তার মাকে জানালে তার মা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ধর্ষক আব্দুল গফফারকে আটক করে।
শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি হাবিল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় পুলিশ ইতিমধ্যে আব্দুল গফফারকে আটক করেছে এবং রবিবার ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেয়া হবে ।

এই সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন