কয়রায় মহেশ্বরীপুরে ৯ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নিম্নমানের ইট দিয়ে নির্মাণ করছে ইটের রাস্তা

কয়রায় মহেশ্বরীপুরে ৯ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নিম্নমানের ইট দিয়ে নির্মাণ করছে ইটের রাস্তা

কয়রা প্রতিনিধিঃ কয়রায় মহেশ্বরীপুর ইউপি চেয়ারম্যান বিজয় সরদার এলজি এসপির ৯ লক্ষ টাকায় নম্বর বিহীন ইট দিয়ে বানিয়াখালী ওয়াপদার উপর সোলিং রাস্তা নির্মাণ করায় অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। ২১০০ ফুট ইটের রাস্তা নির্মাণ কাজে ২০ থেকে ২৫ হাজার ইট কাজের পাশে নেওয়া হয়েছে এবং উক্ত ইট দিয়ে কাজ শুরু করায় এলাকার সাধারণ মানুষ ফুসে উঠেছে সাধারণ মানুষ। খবর পেয়ে মঙ্গলবার ঘটনাস্থলে গেলে শ্রমিকদের রাস্তায় কাজ করতে দেখা গেছে। সরেজমিনে গেলে এলাকার একাধীক ব্যক্তি জানান, মুসলমানদের খাতনার কাজে যে ইটের গুড়া ব্যবহার করা হয় সে ধরনের ইট দিয়ে চেয়ারম্যান বিজয় এই রাস্তা নির্মাণ করছেন। এসময় রাস্তায় বসানো ইট এবং পাশে রাখা ইটের উপর পা দিয়ে চাপ দিলে অধিকাংশ ইট ভেঙে যেতে দেখা গেছে। স্থানীয় বানিয়াখালী গ্রামের যুগল বৈদ্য, ভীতি মন্ডল, নয়ন রায়, কৃষ্ণ, কমলেস মন্ডল, গোলক মন্ডল, তাপস মন্ডলসহ এরও ১০/১৫ জন জানায় চেয়ারম্যান বিজয় এ প্রকল্পের সভাপতি, আমরা এলাকাবাসী এ ধরনের নম্বরবিহীন ইট আনতে দেখে প্রতিবাদ জানালে চেয়ারম্যান ও তার ভাড়াটে লোকজন হুমকী দেওয়ায় নির্মাণকাজে বাঁধা দিতে কেউ সাহস পাচ্ছে না। এছাড়া নিম্মমানের কাদামাটি বালি দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। এ বিষয় ইউপি চেয়ারম্যার বিজয় সরদারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ১ নং ইট দিয়ে রাস্তা করছি এবং পানি লাগায় ইটের রং খারাপ দেখা যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ২১০০ ফুট সোলিং রাস্তা ৯ লক্ষ টাকায় ঠিকাদার কাজ করছে এবং আমার বিরুদ্ধে তোমরা যা পার লেখ। মহেশ্বরীপর ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সুমন বাবু জানান, এলজিএসপির কাজ চেয়ারম্যান নিজেই দায়িত্ব নিয়ে কাজ করছেন। তবে এ ফাইল পত্র চেয়ারম্যানের কাছে থাকায় আমি কিছু বলতে পারব না। এ বিষয় উপজেলা প্রকৌশলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এলজিএসপির কাজ ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে হয় এবং আমরা শুধু মাত্র কাজের ডিজাইন তৈরি করি। তিনি বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান এলজিএসপির টাকা নিজেরা খরচ করেন আমরা এর কোন খবর জানিনা।

Print Friendly, PDF & Email

%d bloggers like this: