কালিগঞ্জে হত্যাসহ ডজন মামলার আসামী নুরুল বাহিনীর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

কালিগঞ্জে হত্যাসহ ডজন মামলার আসামী নুরুল বাহিনীর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

কালিগঞ্জের বহুল বিতর্কিত, এলাকার ত্রাস হত্যাসহ ডজন মামলার আসামী নুরুলসহ তার বাহিনীর সদস্যদের গ্রেপ্তারের দাবীতে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কালিগঞ্জ উপজেলার বন্দকাটি গ্রামের আক্কাস মোড়লের পুত্র আশেক আলী মোড়লের পুত্র। তিনি বলেন নুরুল ডাকাতসহ তার সন্ত্রাসী বাহিনীর দাপটে বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের অবস্থাশালী ও ঘের ব্যবসায়ীরা আজ বড়ই অসহায়। রাতের আধারে দীর্ঘদিন অসংখ্য মানুষের ক্ষতিসাধন করে আসছে তারা। তাদের বাহিনীর বিরুদ্ধে হত্যাকান্ড, ঘের দখল, ঘের লুট, জমি দখল, এসিড নিক্ষেপসহ অনেক চাঞ্চল্যকর অভিযোগ রয়েছে। নুরুল বাহিনীর ভয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান শেখ রিয়াজউদ্দীন, মেম্বর খলিল সরদারসহ ১০/১২ জন কালিগঞ্জ থানায় নিরাপত্তার দাবীতে সাধারণ ডায়রী করেছেন। বাহিনীর প্রধান বন্দকাটি গ্রামের মৃত আরশাদ আলী মোড়লের পুত্র নুরুল, নীলকন্ঠপুর গ্রামের আমজাদ মোড়লের পুত্র আঃ ওয়াহাব, ফতেপুর গ্রামের নেছার আলী কলুর পুত্র জাকারিয়া অরফে জাকির, বন্দকাটি গ্রামের নুরুল মোড়লের পুত্র রনি মোড়ল, ছাকাত মোড়লের পুত্র মফিজুল মোড়ল, মফিজুল মোড়লের পুত্র সুমন মোড়ল, মজু মোড়লের পুত্র সাইদুল মোড়ল, রহিম মোল্লার পুত্র বাবু মোল্লা, জহুরুল মোড়লের পুত্র আজাদ মোড়ল ও মৃত আরশাদ আলীর পুত্র পুলিশ পরিচয় দানকারী আরিফ হোসেন বহু অপরাধের হোতা এবং বহু মামলার আসামী। নুরুল এর নেতৃত্বে বাহিনীর সদস্যরা প্রতিনিয়ত অপরাধ সংঘঠিত করেই চলেছে। তাদের বিরুদ্ধে সহজে কেহ মুখ খুলতে সাহস পায়না। আমার সাথে তাদের জমি যায়গা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে দীর্ঘদিন যাবত। আমার রেকডিয় ও দখলীয় জমিতে জোরপুর্বক গাছ গাছালী কেটে তছরুপ করে আসছে বেশ কিছুদিন যাবৎ। এমতাবস্থায় আমাদেরকে হয়রানী ও ক্ষয়ক্ষতি করতে সম্পুর্ন পরিকল্পিতভাবে নুরুল ও আরিফের বোনের বসতঘরে তারা নিজেরাই রাতের আধারে ১২ জুলাই‘২০ অগ্নী সংযোগ করে। ঐ ঘটনায় মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমুলক ভাবে আমার এবং আমার সাথে উপস্থিত সকলের বিরুদ্ধে ঘরজ্বালানো মামলা দায়েরের পরিকল্পনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। এছাড়াও নুরুল ও তার বাহিনীরা আইনশংঙ্খলা বিঘœ সৃষ্টির লক্ষ্যে গালিগলাজ করে আমাদের জীবন নাশের হুমকী দিচ্ছে এবং পথে ঘাটে একাকী পাইলে হাত পা ভেঙ্গে দেওয়াসহ খুন গুম করবে বলে প্রকাশ্যে আস্ফালন করে। আমরা নুরুল বাহিনীর অত্যাচারের হাত হতে রক্ষা পেতে তাদেরকে গ্রেপ্তার পুর্বক দ্রæত আইনের আওতায় আনার জন্য মাননীয় পুলিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাহিনীর দারা নির্যাতিত আবুল কালাম মোড়ল, ফিরোজ হোসেন লস্কর, তরিকুল ইসলাম, আলাউদ্দীন, শাহিনুজ্জামান রিপন, শাহিমুজ্জামান, শাহবুজ্জামান প্রমুখ।

এই সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

%d bloggers like this: