আশাশুনিতে সাবেক মেম্বার কর্তৃক ৩য় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১

আশাশুনিতে সাবেক মেম্বার কর্তৃক ৩য় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১

জি এম মুজিবুর রহমানঃ আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি ইউনিয়নের মিত্রতেঁতুলিয়ায় শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে। ভিকটিমকে মেডিকেল টেষ্টের জন্য সাতক্ষীরায় পাঠানো হয়েছে।
শনিবার বেলা ১২ টার দিকে মিত্রতেঁতুলিয়া গ্রামের হরমুজ আলীর ৩য় শ্রেণিতে পড়–য়া শিশু কন্যাকে ঘটনার সময় তা মা ফিরোজা খাতুন ডিম আনার জন্য পাশ^বতী বিল ইয়াকুবের বাড়িতে পাঠিয়েছিলেন। সেখানে শাহনগর গ্রামের মৃত শাহ গোলাম ইদ্রিসের ছেলে সাবেক মেম্বর মিজানুর রহমান মন্টু ছিলেন। মন্টু শিশুকে আম্বিয়া খাতুনের ঘরের একটি কক্ষে নিয়ে জোরপূর্বক যৌন নির্যাতন (ধর্ষণ) করেন। শিশুটি চিৎকার করলে পাশের নুর ইসলামের মেয়ে নুরি সেখানে উপস্থিত হয়ে ঘটনা দেখে ফেলে। এসময় মন্টু কাউকে কিছু না বলতে হুমকী দিয়ে চলে যান। ভীত সন্ত্রস্থ শিশুটি কাউকে কিছু বলেনি। তবে তার অস্বাভাবিক অবস্থা দেখে মা ফিরোজা খাতুন বারবার প্রশ্ন করতে থাকলে বিষয়টি নুরি ও ভিকটিম প্রকাশ করে। রবিবার বিষয়টি তার ভাই ট্রিপল নাইনে (৯৯৯) ফোন দিয়ে অবহিত করলে আশাশুনি থানাকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়। সাথে সাথে আশাশুনি থানা পুলিশ ঘনটাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘটনা তদন্ত করেন। এব্যাপারে ভিকটিমের মা ফিরোজা খাতুন বাদী হয়ে থানায় ধর্ষন মামলা (নং ১১, তাং ১৪.০৯.২০) রুজু করেন। পুলিশ যার বাড়িতে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে সেই আম্বিয়াকে গ্রেফতার করেছেন। ধর্ষক মন্টু আত্মগোপন করেছেন। আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ গোলাম কবির জানান, থানায় মামলা রুজু হয়েছে। ভিকটিমের মেডিকেল চেকআপের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আম্বিয়া নামে এক আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধর্ষককে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

%d bloggers like this: