যশোর-৬ কেশবপুর আসনে উপনির্বাচনে শাহীন চাকলাদার এমপি নির্বাচিত

যশোর-৬ কেশবপুর আসনে উপনির্বাচনে শাহীন চাকলাদার এমপি নির্বাচিত

উৎপল দে, কেশবপুর :
উৎসব মুখর পরিবেশে যশোর -৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা শোনা যায়নি। সকাল হতেই ভোটার উপস্থিতিতে কেন্দ্র গুলো ছিলো সরব। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয় । নির্বাচনে আওয়ামীলীগ সমর্তিত প্রার্থী শাহীন চাকলাদার নৌকা প্রতিক নিয়ে ১লাখ ২৪ হাজার ৩ ভোট পেয়ে বে সরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। মোট ৬৩ দশমিক ৫৭ শতাংশ ভোট কাষ্ট হয়েছে।
স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত হন,এবং ভোটাররা তাদের ভোটারিধার প্রয়োগ করেন। ভোট কেন্দ্রের সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষায় ১৮জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও পুলিশ ,র‌্যাব,বিজিবি ও আনসার ব্যাটালিয়ন দায়িত্ব পালন করেন। নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা ছিলো কেশবপুর আসনের প্রতিটি কেন্দ্র।
উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেন। তারা হলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার (নৌকা), বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির মনোনীত প্রার্থী কেশবপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতা আবুল হোসেন আজাদ (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টি (এরশাদ) সমর্থিত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব (লাঙ্গল)। তবে বিএনপি এই উপনির্বাচনে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক ভোট বর্জন করে। যার কারনে নির্বাচনে ২জন প্রার্থী মাঠে ময়দানে থাকেন।
জাতীয় পার্টি এরশাদ সমর্থিত প্রার্থীর কোন এজেন্ট কোন ভোট কেন্দ্রে দেখা মেলেনি।
কেশবপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে যশোর-৬ (কেশবপুর) সংসদীয় আসন গঠিত। এ আসনে মোট ভোটার ২ লাখ ৩ হাজার ১৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ২ হাজার ১২২ ও নারী ভোটার ১ লাখ ৮৯৬ জন। ৭৯টি ভোট কেন্দ্রের ৩৭৪ টি ভোটকক্ষের দায়িত্ব পালন করবেন ৭৯ জন প্রিজাইটিং অফিসার, ৩৭৪ জন সহকারি প্রিজাইটিং অফিসার ও ৭৪৮ জন পোলিং অফিসার। এই আসনে মোট ভোটের সংখ্যা মোট ভোটার ২ লাখ ৩ হাজার ১শত ১৮ এর মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন ১ লাখ ২৯ হাজার ৬৭ জন। যার মধ্যে বাতিল ভোট ১ হাজার ৩শ ৭৪ টি, ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী পান ২ হাজার ১২ ভোট ও লাঙ্গল প্রতিকের প্রার্থী পান ১ হাজার ৬শ ৭৮ ভোট।
সরেজমিন বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শনকালে দেখা গেছে, কেশবপুর সরকারি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় , কেশবপুর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকাল ১০ টায় ভোটারদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতন। বরণডারি কেন্দ্রে পুরুষদের তুলনায় নারী ভোটারদেও উপস্থিতি ছিলো বেশি। উপজেলার সাগরদাঁড়ি ইউনিয়নের গোপসেনা ,চিংড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ,সাগরদাঁড়ি ভোট কেন্দ্রে দুপুর ১২ টায় ভোটারদের উপস্থিতি ছিলো বেশি।চিংড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে আসলেন ১শত ১১ বছরের বছরের এক প্রবীণ ব্যক্তি তিনি ভোট দিতে পেরে ভীষণ খুশি। কথা হয় চিংড়া কেন্দ্রে ৭৬ বছর বয়সী খাইরুলন্নেছা বেগমের সাথে তিনি বলেন ভোট দিতে পেয়ে ভালো লাগচ্ছে। বরণঢালী গ্রামের ইজ্জত আলী (৯৫) বলেন নাতীর সাথে ভোট দিতে এসেছি। রেবা পাল বলেন ভোটের মাঠে এসেছি ভোট দিতে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিলাম। গোপসেনা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আতিয়ার রহমান বলেন স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ভোট দিতে এসেছি। উল্লেখ্য,যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনের এমপি ইসমাত আরা সাদেক চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি মৃত্যুবরণ করায় আসনটি শুণ্য ঘোষণা করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুৃসরাত জাহান সাংবাদিকদের জানান, শান্তিপুর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। কোন প্রার্থী বা কোন পক্ষ কোন প্রকার অভিযোগ করেন নি।

এই সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

%d bloggers like this: