কেশবপুরে পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ থাকার প্রতিবাদ করায় শিক্ষকের পা ভেঙ্গে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা

কেশবপুরে পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ থাকার প্রতিবাদ করায় শিক্ষকের পা ভেঙ্গে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা

উৎপল দে,স্টাফ রির্পোটারঃ যশোরের কেশবপুরের বুড়িহাটী বিলের একটি কালভার্টের মুখে বাধ দিয়ে পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ থাকার প্রতিবাদ করায় বুড়িহাটি মহিলা দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক ও ওই বিলের ফসলের ক্ষতির শিকার আলী আজগর (৫৩) এর উপর হামলা চালিয়ে তার একটি পা ভেঙ্গে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। গুরুতর আহত শিক্ষককে মঙ্গলবার বিকালে কেশবপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার বিকালে আহত আজগর আলী কে উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে তার ছেলে আব্দূল্লাহ আল মামুন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছে। আহত শিক্ষক সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন ধরে একই উপজেলার শিকারপুর পাত্রপাড়া গ্রামর আমজাদ হোসেন মাছের ঘের করে এলাকার কৃষকদের ভোগান্তির সৃষ্টি করে আসছেন। গত কয়েদিন ধরে ভারি বৃষ্টি হওয়ার ফলে বুড়িহাটি উত্তর বিলে পানি জমে যায়। পানি নিষ্কাশনের পথ কালভার্টের মুখে বাধ দিয়ে বন্ধ করে দেযার কারনে পাশের ৪ টি গ্রাম প্লাবিত হয়।যার ফলে উপজেলার হাসানপুর ইউনিয়নের খেজুরকান্দি বিল, বুড়িহাটি বিল, সাগরদাঁড়ি ইউনিয়নের বারুইহাটি বিল, ঝিকরা বিল, মজিদপুর ইউনিয়নের শিকারপুর পাত্রপাড়া বিলসহ কয়েকটি গ্রামের বিলে আমন আবাদ ব্যহত হচ্ছে।এ ঘটনায় গত ৯ আগষ্ট স্থানীয় ইউপি সদস্য মজিবর রহমানসহ ভুক্তভোগী শতাধিক কৃষকরা কেশবপুর উপজেলা নির্বহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন। ১১আগষ্ট মঙ্গলবার সকালের দিকে ওই শিক্ষক বিলে যেয়ে এর প্রতিবাদ করা মাত্রই হাসানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুলমাত আলীর উপস্থিতিতে বুড়িহাটি গ্রামের মাহাবুর রহমান মল্লিক, আজিজুর রহমান দফাদার, তার ছেলে আবু তাহের দফাদার, আবু শাহিন মল্ল্কি সহ আরো অনেকে বুড়িহাটি গ্রামের বাসিন্দা মাদ্রাসা শিক্ষক আলী আজগরের উপর হামলা চালিয়ে আহত করাসহ তার একটি পা ভেঙ্গে দিয়েছে।এ ঘটনায় কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। হাসপাতালের জরুরী বিভাগ কর্মরত ডাক্তার শিক্ষকের বা পা ভেঙ্গে গেছে বলে জানান।অভিযুক্ত মাহাবুর রহমান মল্ল্কি জানান, আমরা শিক্ষককে মারপিট করিনি।১১নং হাসানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুলমাত আলী সাংবাদিকদের জানান, ঘটনাস্থলে আমি গিয়েছিলাম সেখানে একটি গোলযোগ হয়।

Print Friendly, PDF & Email

%d bloggers like this: