অনলাইনে রমরমা মাদক ব্যবসা: আটক-৩

অনলাইনে রমরমা মাদক ব্যবসা: আটক-৩

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটা থানার মাদক বিরোধী অভিযানে জেলার অন্যতম অনলাইন মাদক ব্যবসায়ী নলতার মাদক সম্রাট মুকুল সহ ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। দীর্ঘদিন ধরে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে অনলাইনে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার এবং হোয়াটস অ্যাপের মাধ্যমে মাদক বেচাকেনা করে আসছিল নলতার মুকুল।
শনিবার সকালে দেবহাটা থানার ওসি বিপ্লব কুমার সাহার নির্দেশ মোতাবেক সেকেন্ড অফিসার এসআই নয়ন চৌধুরী, এসআই আবু হানিফ, এসআই আসিফ মাহমুদ সহ সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান চালিয়ে নওয়াপাড়া ইউনিয়ন থেকে মাদক সম্রাট মুকলকে আটক করে। মুকুল কালিগঞ্জ উপজেলার সোনাটিকারী গ্রামের মৃত. ময়জউদ্দীন সরদারের ছেলে।  তবে মুকুলকে আটককালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে একটি বাজাজ প্লাটিনা মোটর সাইকেল ফেলে পালিয়ে যায় দেবহাটা উপজেলার নাংলা বিলপাড়া গ্রামের অপর চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী সাদিক হোসেন।
আটককৃত মুকুলের বিরুদ্ধে কালিগঞ্জ থানায় ১২মে ২০২০ তারিখে ইয়াবা মামলা-১৪, ২১জুলাই ২০১৭ তারিখে ফেনসিডিল মামলা-১৮, ২০মার্চ ২০১৮ তারিখে গাঁজা মামলা-১২/৪৫, ৮ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে গাঁজা মামলা-৬, তালা থানায় ১৯মার্চ ২০১৩ সালে স্ত্রীকে স্বাসরোধে হত্যা মামলা-৭৪ সহ একাধীক মামলা রয়েছে।
এদিকে, মুকুল আটক হওয়ার পর কালিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ হোসেন সহ কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতা মাদক সম্রাট মুকুল সরদারকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশকে বিভিন্ন ভাবে প্রভাবিত করার চেষ্টা ও তদবির করে। তবে মুকুলের মুখ থেকে ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসতে থাকে নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য। তবে তাকে জিঞ্জাসাবাদ করলে বেরিয়ে আসতে পারে বহু মাদক কারবারীদের গোপন কথা।
এছাড়া অপর এক অভিযানে এসআই নয়ন চৌধুরী, এএসআই শামীম হোসেন শিমুলিয়ার নূর মোহাম্মাদ সরদারের ছেলে রাকিব সরদার(৫৪) এবং মৃত ছালামত উল্লাহ সরদারের ছেলে আরশাদ সরদার (৩৬) কে গাঁজা সহ আটক করে। এছাড়া এঘটনায় আরও কয়েকজন আসামী পলাতক রয়েছেন। তাদের ২জনের বিরুদ্ধে দেবহাটা থানায় মাদক মামলা দায়ের পরবর্তী জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।
দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার সাহা জানান, দেবহাটা থানার পুলিশের অভিযানে মাদক সহ ৩ আসামী আটক হয়েছে। যার মধ্যে নলতার মুকুল নামের একজন কুখ্যত মাদক ব্যবসায়ী যার নামে একাধিক মামলা রয়েছে। তার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

%d bloggers like this: