HEADLINE
জনগণের ক্ষতি করে কোনো কাজ করা যাবে না- ঝাউডাঙ্গায় বেত্রবতী নদী খনন কাজ পরিদর্শনে এমপি রবি সাতক্ষীরার উৎপাদিত টমেটো যাচ্ছে রাজধানী’সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সাতক্ষীরা সীমান্তে অপরাধ দমনে বিজিবি ও বিএসএফ এর পতাকা বৈঠক ঝাউডাঙ্গা হাইস্কুল জামে মসজিদের ওযুখানা নির্মাণ কাজ উদ্বোধন শ্যামনগরে বিদ্যুৎস্পর্শে কৃষকের মৃত্যু কাশ্মিরি ও থাইআপেল কুল চাষে সফল সাতক্ষীরার মিলন ঝাউডাঙ্গা সড়কে বাস উল্টে ১০জন আহত ঝাউডাঙ্গায় জমকালো আয়োজনে শুরু হচ্ছে পৌষ সংক্রান্তি মেলা কালিগঞ্জে শীতার্ত মানুষের পাশে ”বিন্দু” মাদ্রাসা শিক্ষক শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে ফের ছাত্র বলাৎকারের অভিযোগ
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন

সাতাইশকাটি ব্রাহ্মণডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ক্লাসরুমের অভাবে খোলা মাঠে বসে পরীক্ষা

উৎপল দে, কেশবপুর / ৩১৯
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৭ জুন, ২০২২


শ্রেণিকক্ষে সংকট থাকায় প্রচন্ড তাপদহে স্কুলের খোলা মাঠে বসে পরীক্ষা দিচ্ছে শিক্ষার্থীরা। যশোরের কেশবপুরের সাতাইশকাটি ব্রাহ্মণডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে মঙ্গলবার ৭ম ও দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা স্কুল মাঠে বসে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি পরীক্ষা দিচ্ছে। প্রচন্ড তাপদাহ মধ্যে পরীক্ষা দিতে যেয়ে অনেকেই অস্বস্তি বোধ করছে। উপজেলার পাঁজিয়া সাতাইশকাটি ব্রাহ্মণডাঙ্গামাধ্যমিক বিদ্যালয়টি একটি ঐতিহ্য বাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রতিবছর ওই প্রতিষ্ঠান থেকে জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষায় ওই ইউনিয়নের ভিতর ভালো ফলাফল করে আসছে। ৬ষ্ঠ হতে ১০ম পর্যন্ত ৪ শতাধিক শিক্ষার্থী পড়াশোনা করেন বিদ্যালয়টিতে। বিদ্যালয়টিতে শ্রেণিকক্ষ সংকট বহুত দিন ধরে। একাধিক বার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস কে অবহিত করলে আজও নিরসন হয়নি তাদের এই সমস্যা। ফলে কষ্টের মধ্যে চলে তাদের পাঠদান আর পরীক্ষা এলেই শ্রেণিকক্ষের অভাবে মাঠে হয় পরীক্ষা ।
১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ইউনুস হোসেন বলেন মাঠে বসে পরীক্ষা দিতে অনেক কষ্ট হয়। বিদ্যালয়ে ক্লাস রুম না থাকায় আজ মঙ্গলবার মাঠে বসে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি পরীক্ষা দিচ্ছি। ১০ শ্রেণির অপর শিক্ষার্থী মিনা খাতুন বলেন ক্লাসরুম না থাকায় গাছ তলায় বসে পরীক্ষা দিতে হচ্ছে। এই গরমে আমাদের খুব কষ্ট হচ্ছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক অভিভাবক বলেন প্রচন্ড তাপদাহ মাঠে বসে পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি যেয়ে আমার মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলো।

ওই প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক মহিতোষ কুন্ডু বলেন, বিদ্যালয়ে পর্যাপ্ত শ্রেণিকক্ষ না থাকায় পরীক্ষা স্কুল মাঠে নিতে হচ্ছে। স্কুল টি প্রতি বছর ভালো ফলাফল করে আসছে।
প্রধান শিক্ষক আব্দুল লতিফ বলেন শ্রেণিকক্ষ কম এবং শিক্ষার্থী বেশি হওয়াই স্কুল মাঠে বসে পরীক্ষা নিতে হচ্ছে। বিষয়টি একাধিক বার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস কে জানানো হয়েছে।
এ ব্যাপরে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ কামরুজ্জামান বলেন আমি সদ্য যোগদান করেছি। এ বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই। এখনি বিষযটি সম্পর্কে খোঁজ খবর নিচ্ছি।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ