সাতক্ষীরায় প্রতারক হোসনেয়ারা’র কবল থেকে রক্ষা পেতে পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা

সাতক্ষীরায় প্রতারক হোসনেয়ারা’র কবল থেকে রক্ষা পেতে পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরায় অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে বিয়ে এবং মারপিট করে স্বাক্ষরিত
চেক ও টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে হোসনেয়ারা মিথ্যে
তথ্য দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে। সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক
সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন, সদর উপজেলার মাগুরা গ্রামের মৃত আক্কাছ
আলীর ছেলে বৃদ্ধ মোঃ আশরাফ আলী।
 লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, বিগত ২০১৩ সালের দিকে শ্যামনগরের গড়কোমরপুর
থেকে সাতক্ষীরায় আসা মৃত আরমান ঢালীর ছেলে সিরাজুল ইসলাম ও তার স্ত্রী
হোসনেয়ারার সাথে আমার পরিচয় হয়। হোসনেয়ারা আমাকে পিতা বলে ডাকায় আদালতে
এফিডেভিটের মাধ্যমে তাকে মেয়ে হিসেবে গ্রহণ করি। এরপর থেকে হোসনেয়ারার
আসল রূপ বেরিয়ে আসতে থাকে। আমার বাড়িতে এবং সন্তানদের সাথে উঠা-বসার
একপর্যায়ে হোসনেয়ার স্বামী সন্তান থাকার পরও গোপনে আমার বড় ছেলে
আহসানউল্লাহ সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং পরে দু’জনে বিয়েও করে।
বিষয়টি জানার পর আমরা মেনে না নেয়ায় ২০১৩ সালের ২০ নভেম্বর হোসনেয়ারা
আমার স্ত্রী, দুই ছেলেসহ আমার নামে আদালতে নারী নির্যাতনের মামলা দায়ের
করে। এছাড়া আহসানউল্লাহর কাছ থেকে কৌশলে নেওয়া একটি চেকে ৫লক্ষ টাকা
বসিয়ে চেক জালিয়াতির মামলা দায়ের করে।
আশরাফ আলী বলেন, গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মাধ্যমে ওই দুটি মামলা ২লক্ষ টাকায়
মিমাংসা করার কথা বলে এভিডেভিট করে দেয় হোসনেয়ারা। কিন্তু মামলা তুলে না
নিয়ে আমাদের বিভিন্নভাবে হয়রানির চক্রান্ত করতে থাকে। এরই জের ধরে গত ১০
ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে কাটিয়া লস্কপাড়া প্রাইমারী স্কুলের সামনে
একা পেয়ে হোসনেয়ারা, তার স্বামী সিরাজুল, ছেলে তানভীর আহমেদ ও অজ্ঞাতনামা
৪/৫জন আমার ছেলেকে আটকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তার
কাছে থাকা নগদ ৬০ হাজার টাকা কেড়ে নেয়। এছাড়া তার কাছে থাকা স্বাক্ষরিত
একটি চেক জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেয়। এসময় তাদের ধারালো অস্ত্রের কোপে আমার
ছেলে মারাত্মক আহত হয়। এঘটনায় আমি বাদী হয়ে ১২ ডিসেম্বর সদর থানায় একটি
মামলা দায়ের করি। উক্ত মামলার খবরে হোসনেয়ারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমার দুই ছেলে
এবং আমাকে হয়রানির উদ্দেশ্যে ছিনিয়ে নেওয়া চেকে ১৬ লক্ষ টাকা বসিয়ে তার
সহযোগী আলীরপুর গ্রামের ইব্রাহিমকে দিয়ে আদালত থেকে একটি উকিল নোটিশ
পাঠিয়েছে।
তিনি আরো বলেন, পরসম্পদ লোভী প্রতারক হোসনেয়ারা সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে
সংবাদ সম্মেলনে মিথ্যেচার করেছে। সেখানে আমি, আমার স্ত্রী ও দুই ছেলের
নামে মিথ্যে তথ্য উপস্থাপন করেছে। হোসনেয়ারা খপ্পড়ে পড়ে আমাদের পুরো
পরিবার দিশেহারা হয়ে পড়েছি। হামলার পর থেকে আমার বড় ছেলে এখনো সুস্থ্য
হতে পারেনি। জানিনা কোনদিন সে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবে কি না। অথচ এর
মধ্যেওই ওই প্রতারক হোসনেয়ারার চক্রান্ত অব্যাহত রয়েছে। আমি সংবাদ
সম্মেলনে হোসনেয়ারার দেয়া বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
তিনি পরসম্পদ লোভী প্রতারক হোসনেয়ারার কবল থেকে রক্ষা পেতে সাতক্ষীরা
পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Print Friendly, PDF & Email
এই সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন