বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:২৪ পূর্বাহ্ন

সাতক্ষীরায় ‘ইয়ুথ লেড ইনোভেশন বুট ক্যাম্প’ এর সমাপনী

স্টাফ রিপোর্টার / ৩০৩
প্রকাশের সময় : শনিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২১

তরুণ প্রজন্মের সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে সামাজিক ও অর্থনৈতিক সমস্যাগুলোকে চিহ্নিত করে সেগুলোর গঠনমূলক সমাধান খুঁজে বের করার উদ্দেশ্যে সাতক্ষীরায় তিন দিন ব্যাপি ইয়ুথ লেড ইনোভেশন ল্যাব বুট ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২ডিসেম্বর) এই ক্যাম্পের সমাপনী দিনে অংশগ্রহণ করেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে ১৫ জন যুব-যুবা।আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেন পরিচালিত ইয়ুথ লেড ইনোভেশন ল্যাব পাইলট প্রকল্পের অংশ হিসেবে ব্রেকিং দ্য সাইলেন্স এর সহযোগিতায় সাতক্ষীরায় যুবদেরকে নিজেদের এবং সমাজের সার্বিক উন্নয়নের সাথে আরও সম্পৃক্ত করে একটি উন্নততর ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করার অংশ হিসেবে এই আয়োজন করা হয়েছে । ইয়ুথ লেড ইনোভেশনের মৌলিক নীতিমালা ও কর্মকাণ্ডের মধ্যে রয়েছে যুবদের ক্ষমতায়ন করা, বহুসাংস্কৃতিক দলের মধ্যে থেকে কাজ করা, আত্মপ্রকাশের সুযোগ করে দেওয়া, সহায়তার মনোভাব তৈরি করা এবং নতুন উদ্ভাবনগুলোকে স্থায়ী এবং টেকসই করে তোলা। এখানে যুবরা তাদের নিজ নিজ এলাকার সামাজিক ও অর্থনৈতিক সমস্যার কথা তুলে ধরবে এবং সেটির সমাধান নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করবে। এই আলোচনার মধ্য দিয়ে একটি নির্দিষ্ট গঠনমূলক সমাধান বের করার চেষ্টা করবে। সাতক্ষীরার এই বুটক্যাম্পে ৫ টি ভিন্ন দল ৫ টি সমাধান খুঁজে বের করার চেষ্টা করবে, এবং এর ভিত্তিতে দুই/তিনটি দল নির্বাচিত হয়ে ঢাকার মূল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে। সেখানে সারা দেশ থেকে আসা অন্য দলগুলোর সাথে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে নিজেদের মধ্যে সমস্যা এবং সমাধানগুলো নিয়ে কাজ করবে।
সমাপনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফাতেমা-তুজ-জোহরা। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সেভ দ্য চিলড্রেনের ডেপুটি ডিরেক্টর (ইওয়াইই) নিশাত আফরোজ, ডেপুটি ম্যানেজার (ইওয়াইই) সাবেরা ইয়াসমিন, সিনিয়র অফিসার (মিল) এস.এম ইউসুফ, ব্রেকিং দ্য সাইলেন্স এর ডেপুটি ডিরেক্টর ড. মোহাম্মাদ তারেকুজ্জামান, ডেপুটি ম্যানেজার মো. শরিফুল ইসলাম ও প্রকল্প সমন্বয়কারী মো. মনিরুজ্জামান টিটু, দৈনিক দক্ষিণের মশাল পত্রিকার সম্পাদক অধ্যক্ষ আশেক-ই-এলাহী, জেড গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামরুজ্জামান রাসেল প্রমুখ। ডেপুটি ডিরেক্টর (ইওয়াইই) নিশাত আফরোজ বলেন, ‘আমাদের প্রতিযোগিতায় যারা বিজয়ী হবে তাদের পুরস্কার হিসেবে কর্পোরেট এবং প্রাইভেট সেক্টরের সহযোগিতায় আমরা একটি নির্দিষ্ট অঙ্কের সীড মানি সহায়তা করার চেষ্টা করব। আমাদের উদ্দেশ্য হবে চাকরি বা কাজের উৎসের সাথে যুবদের সংযোগ ঘটানোর পাশাপাশি নতুন উদ্যোক্তা হবার ক্ষেত্রে উৎসাহী করা এবং উদ্ভাবনের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করা।’
ব্রেকিং দ্য সাইলেন্স এর ডেপুটি ডিরেক্টর ড. মোহাম্মাদ তারেকুজ্জামান বলেন, আমরা ইয়ুথ লেড ইনোভেশনের মাধ্যমে একটি ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করতে চাই, যার ফলে তরুণেরা গতানুগতিক ধারার বাইরে এসে চিন্তা করতে পারবে, পাশাপাশি স্বাধীন পেশা ও কাজের সুযোগ সৃষ্টি হবে।
 ইয়ুথ লেড ইনোভেশন ল্যাবের মাধ্যমে স্থানীয় পর্যায়ে ইয়ুথ ইনোভেটর বা উদ্ভাবকদের সুনির্দিষ্ট প্রতিবন্ধকতাগুলো চিহ্নিত করতে সহায়তা করা হবে এবং তা মোকাবেলায় তাদের নিজস্ব চিন্তাধারাকে একটি রোডম্যাপ এর সাহায্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের দিকে ধাবিত করা হবে। এই ল্যাবের মাধ্যমে যুবরা তাদের লক্ষ্যের সাথে মিলিয়ে নতুন উদ্ভাবন, প্রো-ইয়ুথ ও সমন্বিত উদ্ভাবনের কার্যক্রম একেবারে তৃণমূল  পর্যায়ে বাস্তবায়ন করার সুযোগ পাবে। এর সাথে সাথে সমাধানের নানা পদ্ধতি সম্পর্কে একটি পরিষ্কার এবং বিশদ ধারণা পাওয়া যাবে।
ইতিমধ্যে কক্সবাজারে বুট ক্যাম্প সম্পন্ন হয়েছে। পরবর্তীতে ঢাকা, সিলেট ও মৌলভীবাজারে আরও তিনটি বুট ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে। মোট দুইটি করে গ্রুপে, পাঁচটি জেলা থেকে ৩০ জন ইয়েস কার্ড প্রাপ্ত যুবরা ঢাকার ফাইনাল ক্যাম্পিং এ যোগদান করবে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ