HEADLINE
বল্লীতে বজ্রপাতে শিশুর মৃ’ত্যু ভোমরা স্থলবন্দরে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টিকারীদের কোনভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না বলাডাঙ্গায় জমি সংক্রান্ত বি’রো’ধে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খু’ন বৈষম্যের প্রতিবাদে সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি সাতক্ষীরার উন্নয়ন ইস্যুতে ৫ এমপি’কে এক টেবিলে বসার আহবান সাতক্ষীরায় তামাক কোম্পানির বিজ্ঞাপণে সয়লাব, টার্গেটে কিশোর ও তরুণ সাতক্ষীরায় বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস পালন সাতক্ষীরার পর এবার মাগুরার সিভিল সার্জনের বিরুদ্ধে জনবল নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ! কলারোয়ায় এক কৃষকের ঝু’ল’ন্ত লা’শ উ’দ্ধা’র কলারোয়ায় স্বামীর পুরুষা’ঙ্গ কে’টে দ্বিতীয় স্ত্রী’র আ’ত্ম’হ’ত্যা
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৯:৪৮ অপরাহ্ন

সাতক্ষীরায় ৬০৬টি পূজা মন্ডপে অনুষ্ঠিত হবে দুর্গাপূজা

খলিলুর রহমান, সাতক্ষীরা / ৪৬২
প্রকাশের সময় : সোমবার, ৯ অক্টোবর, ২০২৩

আগামী ২০ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে শুরু হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এবার জেলার সাতটি উপজেলার ৬০৬টি পূজা মন্ডপে অনুষ্ঠিত হবে দুর্গাপূজা। রঙের আঁচড় আর সাজসজ্জায় দুর্গাদেবীকে সাজাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন সাতক্ষীরার প্রতিমা শিল্পীরা। নানান রঙ আর তুলির আঁচড়ে ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে মন্ডপের দুর্গা দেবীর প্রতিচ্ছবি।

সাতক্ষীরা জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ সূত্রে জানা যায়, এ বছর জেলায় ৬০৬টি পূজামন্ডপে দূর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে কলারোয়া উপজেলার ৪৮টি, তালা ১৯৬টি, সাতক্ষীরা সদরে ১১২টি, আশাশুনি ১০৮টি, দেবহাটায় ২১টি, কালিগঞ্জে ৫১টি ও শ্যামনগর উপজেলার ৭০টি পূজামন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। গত বছর জেলায় পূজা মন্ডপের সংখ্যা ছিল ৫৯৯টি। চলতি বছর পূজা অনুষ্ঠিত হবে ৬০৬টি মন্ডপে। গত বছরের তুলনায় এবছর পূজামন্ডপের সংখ্যা ৭টি বেড়েছে।

সাতক্ষীরা জেলা শহর ও এর আশেপাশের বিভিন্ন মন্ডপ ঘুরে দেখা গেছে, কেউ মাটির কাজ শেষ করে দেবীর গায়ে দিচ্ছেন তুলির আঁচড়, আবার কেউ ব্যস্ত প্রতিমার গায়ে কাঁদা মাটির প্রলেপ লাগাতে। তাদের যেনো দম ফেলার সময় নেই। প্রতিমা শিল্পীরা রাত দিন কাজ করে যাচ্ছেন। তাই যেন ঘুম নেই প্রতিমা শিল্পীদের।

সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার কাজী মনিরুজ্জামান বলেন, শারদীয় দুর্গাপূজায় প্রতিবছরের ন্যায় এবারও পুলিশের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। প্রতিটি পূজামন্ডপে আনসার সদস্যরা ডিউটিতে থাকবে। গুরুত্বপূর্ণ মন্ডপে থাকবে পুলিশ। প্রত্যেক অফিসার বিভিন্ন থানায় বিভিন্ন পূজা মন্ডপগুলো পরিদর্শন করবে। পাশাপাশি যে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো আছে তাদের ডিউটিগুলো সবসময় পর্যবেক্ষণ করা হবে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ