বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:০১ অপরাহ্ন

শ্যামনগরে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে মা ছেলে আহত

শ্যামনগর প্রতিনিধি / ১১১
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২১

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে জমা জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে মা ও ছেলে সহ ২ জন মারাত্মক আহত হয়েছে আহতরা শ্যামনগর হাসপাতালের চিকিৎসাধীন। আহতরা হলেন-চন্ডিপুর গ্রামের সেকেন্দার আলীর স্ত্রী নাছিমা খাতুন(৩৫) ও তার পুত্র জাহিদ হাসান আকাশ(১৪)।এ ঘটনায় চন্ডিপুর গ্রামের মৃত আরশাদ আলী গাজীর পুত্র সেকেন্দার আলী(৫২) শ্যামনগর থানায় এজাহার দাখিল করেছেন। এজাহার সূত্রে প্রকাশ, চন্ডিপুর মৌজার জে, এল, ৯৪ নং এর মধ্যে ৩২ শতক পৈত্রিক ও রেজিঃ কোবলা সম্পত্তিতে এসকেন্দার আলী পাকা প্রাচীর দিয়ে গাছগাছালি লাগিয়ে বাড়ি ঘর তৈরী করে দীর্ঘদিন যাবৎ শান্তিপুর্ণ ভাবে ভোগ দখল করে আসছেন। এ সম্পতি নিয়ে অহেতুক বিরোধ সৃষ্ঠি করার অভিযোগ উঠে প্রতিবেশী মৃত আব্দুল মালেক গাজীর পুত্র শওকাত হোসেন সহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে। ১৮ অক্টোবর পরিকল্পিত ভাবে ঐ সম্পত্তি দখল করতে যাওয়ায় প্রতিপক্ষের দ্বারা মারাত্মক আহত হন নাছিমা খাতুন ও তার পুত্র আকাশ। নাছিমা খাতুনকে রক্তাত্ত জখম ও আকাশ কে হাড় ভাঙ্গার গুরুতর জখমের অভিযোগ উঠে। তাদের কে উদ্ধার করে শ্যামনগর স্বাস্ব্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় তার প্রতিবেশী শওকত গাজী, শাহাজান সরদার, এবাদুল গাজী, রাজু গাজী, আব্দুল্যাহ গাজী, আব্দুর রহিম গাজী, রেজা সরদার, শহিদ সরদার সহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জন কে আসামী করে শ্যামনগর থানায় এজাহার দাখিল করা হয়েছে বলে জানান । গত ৮ আগষ্ট এ সম্পত্তি নিয়ে ইতিপূর্বে স্থানীয় শ্যামনগর সদর ইউপি চেয়ারম্যান এস, এম, জহুরুল হায়দার বাবু বরাবরে এসকেন্দার আলী গাজী বাদী হয়ে শওকাত হোসেন দিং বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। ইউপি চেয়ারম্যান এস, এম, জহুরুল হায়দার বাবু বিষয়টি স্থানীয় ভাবে সমাধান করার জন্য দায়িত্ব দেন-ইউপি সদস্য শক্তি শেখর চক্রবর্তী ও ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ কে। তারা স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে পৃথক পৃথক শুনানী করেন সালিশী বৈঠকে। সালিসী বৈঠকের সিদ্ধান্তে জানা যায়, শওকত হোসেন দিং কে জমির উপর দখল বেদখল কে কেন্দ্র করে গোলযোগ ফ্যাসাদ থেকে বিরত থাকতে পরামর্শ দেওয়া হয়। এসকেন্দার আলীর সম্পত্তিতে বিবাদীদের খোঁটা উত্তোলন করে  পূর্বের ন্যায় সীমানা বহাল অন্তে বসবাস করার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়। ইউপি চেয়ারম্যান এস, এম, জহুরুল হায়দার বাবু এ ধরনের সালিসী বৈঠকের সিদ্ধান্তে দেখিলাম মর্মে স্বাক্ষরিত রয়েছে। শওকত হোসেন জানান, এ সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে এ  ধরনের সালিসী বৈঠকের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে।শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী ওয়াহেদ মূর্শেদ জানান, এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করতে অব্যহত রয়েছে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ