HEADLINE
পরীক্ষার সময় পরিবহন চলা নিয়ে নিশ্চিত নয় জবির পরিবহন পুল উপকূলে সংকট বাড়ছে, সংকট সমাধানে প্রয়োজন সুপেয় পানি সহ টেকসই বেড়িবাঁধ খলিশাখালিতে প্রতিবাদ সমাবেশ, প্রশাসনের সহযোগীতা চান ভূমিহীনরা একটি ছবি হয়ে উঠেছে আদর্শ ও অনুপ্রেরণা উৎস : তথ্য প্রতিমন্ত্রী খুলনায় ইউপি ভবন থেকে অস্ত্র-গুলিসহ গ্রেফতার ৩ আশাশুনিতে পারস্পরিক শিখন প্রাতিষ্ঠানিকীকরণে অভিজ্ঞতা বিনিময় সফর বল্লীতে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা কেশবপুরের বিল খুকশিয়ায় মাছের ঘেরের বেড়িতে তরমুজ চাষে কৃষকের সাফল্য সাতক্ষীরা রেঞ্জের অভয়ারণ্য থেকে ৩ জেলেসহ মাছ ধরা ট্রলার আটক অসহায় মানুষের পাশে “আল নূর” পরিবার
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১৪ অপরাহ্ন

শার্শায় ক্লিনিক থেকে নবজাতক চুরির ৩ দিনেও উদ্ধার হয়নি

টিটু মিলন, বেনাপোল / ১৩
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

যশোরের শার্শার নাভারণে একটি বেসরকারি ক্লিনিক থেকে নবজাতক চুরি হওয়ার ৩ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও উদ্ধার হয়নি শিশুটি। বৃহস্পতিবার বেলা ২ টার দিকে উপজেলার নাভারণ বাজারের ‘নাভারণ ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার’ থেকে শিশুটি চুরি হয়েছে। ঘটনার পর থেকে শার্শা থানা পুলিশের পাশাপাশি যশোর জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের একটি চৌকস টিম শিশুটি উদ্ধারের জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে।নবজাতকের বাবা ঝিকরগাছা উপজেলার মধুখালী গ্রামের বাসিন্দা বিল্লাল হোসেন বলেন, আমার স্ত্রী রেক্সোনা খাতুনের প্রসব বেদনা উঠলে মঙ্গলবার দুপুরে নাভারণ ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। সেখানে রাত ৯টার দিকে সিজারিয়ানের মাধ্যমে কন্যা সন্তানর জন্ম হয়। শিশুটিকে নিয়ে বেডে আসার পর অনেকেই তাকে নিয়ে আদর করছিল। মা ও মেয়ে সুস্থ ছিল। বৃহস্পতিবার বেলা ২ টার পর থেকে শিশুটিকে আর পাওয়া যাচ্ছে না। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো সন্ধান আজও পাওয়া যায়নি।


নাভারণ ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের তত্বাবধায়ক আবু সাঈদ হিমন জানান, অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সুস্থ সন্তান জন্ম দেন রেক্সোনা খাতুন। শিশুটিকে আমরা তাদের হাতে তুলে দিই। কিন্তু বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টার সময় থেকে শিশু সন্তানটি পাওয়া যাচ্ছে না। 


শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বদরুল আলম খান জানান, ঘটনার পর থেকে শার্শা থানা পুলিশের পাশাপাশি যশোর জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের একটি চৌকস টিম শিশুটি উদ্ধারের জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে। #


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ