HEADLINE
ছওয়াব ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ”আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে যাকাতের ভূমিকা” শীর্ষক সেমিনার ঝাউডাঙ্গা ভূমি অফিসের তহসিলদারের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ দাঁতভাঙা বিলে মৎস্য ঘের থেকে অজ্ঞাত নারীর লা’শ উদ্ধার মুখে মাস্ক পরে দেবহাটায় একরাতে ৪টি দোকানে চুরি ভাগ্য খুলতে পারে খুলনা জেলা ছাত্রলীগের! স্কুল ম্যানেজিং কমিটি গঠনে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ সাতক্ষীরায় বেসরকারি ক্লিনিকে অভিযানে ভুয়া চিকিৎসকসহ দু’জনের কারাদণ্ড সাতক্ষীরা হার্ট ফাউন্ডেশনে সেবিকার কর্তব্য অবহেলায় বৃদ্ধার মৃ’ত্যুর অভিযোগ ডুমুরিয়ায় দুই শিশু সন্তানকে বালিশ চা’পা দিয়ে হ’ত্যার পর মায়ের আত্মহ’ত্যা ভোমরা প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন : সভাপতি জাহাঙ্গীর, জিয়া সাধারণ সম্পাদক
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন

লাবসায় রাস্তা সংস্কারে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

টুডে ডেস্ক / ২১২
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২৪

সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ১৩ নং লাবসা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের গোপিনাথপুর গ্রামে ঋশিল্পি মোড় থেকে ব্যাংকার আনারুলের বাড়ি পর্যন্ত ৪১০ মিটার রাস্তার সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নাম মাত্র বিটুমিন দিয়ে রাস্তার কার্পেটিং কাজ শেষ কারা হয়েছে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছেন। নিম্নমাণের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার হয়েছে। সিডিউল অনুযায়ী কোনো কাজ হয়নি বলে দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী। রাস্তার কার্পেটিংয়ের পরদিনই রাস্তার বিভিন্ন স্থানে পিচ উঠে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। রাস্তার এই দ্বায়সারা কাজটি করছেন মেসার্স আরাফাত এন্ড রুমা এন্টার প্রাইজ প্রতিষ্ঠানের নামে ঠিকাদার মোঃ মিজান হোসেন। সরেজমিন দেখা যায়, রাস্তাটি ঠিকাদারের লোকজন দ্রুতগতিতে কমদামের বিটুমিন দিয়ে রাস্তার কাজ সম্পন্ন করেছেন। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী বিটিসিএলের বিটুমিন ব্যবহার করার কথা থাকলেও ঠিকাদার তা করছেন না। এ ছাড়া রাস্তার কাজে যে ম্যাকাডাম করা হয়েছে তা নিন্মমানের ইটের খোয়া দিয়ে। ইট ভাটা থেকে দুই নম্বর ও তিন নম্বর আদলা ইট এনে তা ভেঙে ম্যাকাডম তৈরি করে ওই রাস্তার কাজে ব্যবহার করতে দেখা গেছে। নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে রাস্তার কাজ করায় কিছুদিন পর রাস্তাটি আবার আগের মতো হয়ে যাবে বলে এলাকাবাসী মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে গোপিনাথপুর গ্রামের মোঃ পলাশ বলেন , রাস্তার কাজটি যেভাবে হওয়ার কথা সেই ভাবে হয় নাই এই রাস্তার কাজটি ঠিকাদার ব্যাপক অনিয়ম করছে। নামমাত্র বিটুমিন দিয়ে কোন রকম রাস্তার কাজটি করেছে।

একই এলাকার সাইদুল ইসলাম বলেন, আমরা এই রাস্তায় চলাচল করি রাস্তা করার সময় ঠিকাদারকে বললাম ভাই একটু বিটুমিন ঠিকঠাক মতো দিয়েন সে আমাকে বললো আপনি বলার কে আমার নাম মিজান আমি এর চেয়ে ভাল করেতে পারবো না। রাস্তা একদিন না যেতে পিচ উঠে যাচ্ছে আমরা এই রাস্তার নতুন করে সংস্কাররের দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে ঠিকাদার মোঃ মিজান হোসেন বলেন, রাস্তার কাজে সব ঠিকঠাক মতো করা হয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ সঠিক না। রাস্তা করার সময় উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার উপস্থিত ছিলো।

সাতক্ষীরা এলজিইডি উপজেলা প্রকৌশলী ইয়াকুব আলী জানান, রাস্তাটির অনিয়ম হওয়ার কোন সুযোগ নাই যদি কোন অনিয়ম হয়ে থাকে তাহলে ঠিকাদার নতুন করে রাস্তাটি সংস্কার করে দেবে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ