পাটকেলঘাটায় আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ঘের তৈরীর অভিযোগ!

পাটকেলঘাটায় আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ঘের তৈরীর অভিযোগ!

খলিলুর রহমান, পাটকেলঘাটাঃ পাটকেলঘাটায় সরুলিয়ার সৈয়দপুর গ্রামের সরকারী খাল ও স্থানীয়দের রেকডীয় সম্পত্তি জোরপূর্বক দখল করে ঘের তৈরীর অভিযোগ উঠেছে ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক কল্যাণ কুমার ঘোষ’র বিরুদ্ধে। তিনি সরুলিয়া গ্রামের মৃত্যু নগেন ঘোষের ছেলে ও উপানুষ্ঠানিক প্রাথমিক শিক্ষা সচিব তপন কুমার ঘোষ’র ভাই।

সরেজমিন পরিদর্শন ও এলাকাবাসির সাথে কথা বলে জানা যায়, তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার সৈয়দপুর গ্রামের সরকারী পিচের রাস্তার পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া প্রবাহমান খালের মুখ বেঁধে ও পাশের রেকডীয় সম্পত্তি জোর পূর্বক দখল করে ঘের তৈরী করছেন সরুলিয়া গ্রামের কল্যাণ কুমার ঘোষ। জমির মালিকরা ডিট না করে দিলেও জোর পূর্বক ভেড়ী বেঁধে নিয়েছেন তিনি। বর্ষা মৌসুমে ওই এলাকার ৮/৯টি গ্রামের পানি চলাচলের পথ বন্ধ করে এই ভেড়ী বাঁধ দেয়া হয়েছে বলে এলাকাবাসি জানান।
আগামী বর্ষা মৌসুমে ফসল ও বাড়িঘর তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় ফুঁসে উঠেছে ঐ এলাকার মানুষ, করেছেন মানব বন্ধন। প্রতিকার চেয়ে প্রশাসনের হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন তারা। সৈয়দপুর গ্রামের আলমগীর হোসেন (৪১), মোশারাফ হোসেন (৩০), হাতেম বৈদ্য (৫৫), মিহির কুমার ঘোষ (৭০), আশিষ কুমার ঘোষ (৩৫) ও মৌলুদা বেগম (৩৮) এ প্রতিবেদককে জানান, সম্পূর্ণ গায়ের জোরে অবৈধ ভাবে সচিব ভাই তপন কুমার ঘোষ’র ক্ষমতার বলে কল্যাণ কুমার ঘোষ সরকারী খালের মুখ ও আমাদের জায়গা দখল করে ঘের তৈরী করছেন। এখানে তারও অল্প জমি আছে। পিচের রাস্তা তৈরীর সময় তার ওই জমি থেকে বালু বিক্রি করলে নীচু হয়ে যায়। এখন সেই জায়গা সহ অন্যদের জায়গা দখল করে ঘের করছেন তিনি। তারা বলেন, বর্ষা মৌসুমে এই খাল দিয়ে এলাকার ৮/৯ টি গ্রামের পানি সরে। এখন খালের মুখ বেঁধে দিলে আগামী বর্ষা মৌসুমে এই গ্রাম গুলো তলিয়ে স্থায়ী জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হবে। নষ্ট হবে ক্ষেতের ফসল, গাছগাছালি এমনকি বাড়ি ঘরেও পানি উঠে যাবে। সে আশঙ্কায় আমরা গ্রামবাসি গতকাল ওই জায়গায় পিচের রাস্তার উপর মানব বন্ধন করেছি। গত বছরও এভাবে আরও একটি খালের মুখ দখল করে নেয় এই কল্যাণ। ফলে ঐ বিলে আমন ফসল হয়নি বলে তারা জানান। কল্যাণের অত্যাচার ও নির্যাতনের প্রতিকার চেয়ে প্রশাসনের হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন ভূক্তভোগী এলাকাবাসি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে কল্যাণ কুমার ঘোষ বলেন, আমি কোনো খালের মুখ বন্ধ করিনি। তারা অন্যায় ভাবে আমার বিরুদ্ধে মানব বন্ধন করেছে। পাটকেলঘাটা থানার ওসি এলাকা পরিদর্শন করেছেন। তিনি যে ভাবে রায় দেন সে ভাবে কাজ হবে।

Print Friendly, PDF & Email
এই সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন