HEADLINE
সাতক্ষীরার উৎপাদিত টমেটো যাচ্ছে রাজধানী’সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সাতক্ষীরা সীমান্তে অপরাধ দমনে বিজিবি ও বিএসএফ এর পতাকা বৈঠক ঝাউডাঙ্গা হাইস্কুল জামে মসজিদের ওযুখানা নির্মাণ কাজ উদ্বোধন শ্যামনগরে বিদ্যুৎস্পর্শে কৃষকের মৃত্যু কাশ্মিরি ও থাইআপেল কুল চাষে সফল সাতক্ষীরার মিলন ঝাউডাঙ্গা সড়কে বাস উল্টে ১০জন আহত ঝাউডাঙ্গায় জমকালো আয়োজনে শুরু হচ্ছে পৌষ সংক্রান্তি মেলা কালিগঞ্জে শীতার্ত মানুষের পাশে ”বিন্দু” মাদ্রাসা শিক্ষক শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে ফের ছাত্র বলাৎকারের অভিযোগ স্বামী বিবেকানন্দ দর্শন আমাদের মুক্তির পথ : সাতক্ষীরায় ১৬০তম জন্মবার্ষিকী উৎসবে আলোচকরা
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৩৮ অপরাহ্ন

পাইকগাছা পৌরসভার পানি প্রকল্পের নির্মাণাধীন ঘর ভেঙ্গে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

পাইকগাছা প্রতিনিধি / ৯৬
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২২

পাইকগাছা পৌরসভার পানি সরবরাহ প্রকল্পের নির্মাণাধীন ঘরের কাজে বাঁধা প্রদান, ঘরের অংশ বিশেষ ভেঙ্গে দেওয়া ও মটর পাম্প সহ বিভিন্ন উপকরণ সামগ্রী চুরির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে থানায় মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পৌর কর্তৃপক্ষ। কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল গফফার মোড়ল জানান, পৌরসভার পাইপ লাইনে পানি সরবরাহ প্রকল্পের আওতায় ২০২১ সালে পৌরসভা সংলগ্ন গদাইপুর ইউনিয়নের কাজী বাড়ীর পাশে ৪.৭০ শতক জমি কোবলা দলিল মুলে ক্রয় করা হয়। ক্রয়কৃত পৌরসভার নিজস্ব এ সম্পত্তিতে ইতোমধ্যে একটি
নলকূপের বোরিং করে পাম্প মটর স্থাপন করা হয়েছে এবং বর্তমানে পানি সরবরাহের পাম্প স্থাপনের জন্য পাম্প ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। নির্মাণ কাজ শুরু করার সময় এ কাজে বাঁধা দেয় গদাইপুর গ্রামের কাজী মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে কাজী শুভ
সহ কতিপয় ব্যক্তি। এরপর কাজী শুভ বাদী হয়ে মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর সহ ২ জনকে বিবাদী করে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে ২২ জুন ২২৩/২২ নং এমআর মামলা করে। মামলায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর নির্দেশনা অনুযায়ী ৬ ডিসেম্বর তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম।প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, গদাইপুর ইউনিয়নের অনেকের সাথে কথা বলে জানাযায়, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের কোথাও নলকূল এর লেয়ারের কোন সমস্যা নাই এবং ওই ইউনিয়নের নলকূপের পানির স্তর নীচে নেমে গেছে এমন কোন তথ্য অত্র দপ্তরে নাই। সে অনুযায়ী যদি কখনো অধিক মাত্রায় পানি উত্তোলন করার ফলে পানি স্তরের সমস্যা সৃষ্টি হয় তখন পৌর কর্তৃপক্ষ পানি উত্তোলন বন্ধ রাখবে এমন শর্তে পাম্প স্থাপনের অনুমতি দেওয়া যেতে পারে বলে প্রতিবেদনে সুপারিশ করা হয়। প্রতিবেদন অনুযায়ী ১৪ ডিসেম্বর শুনানী আন্তে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনস্বার্থে পৌরসভার পানির পাম্প স্থাপনে কোন বাধা প্রদান করা যাবে না এবং ভবিষ্যতে কোন অনাকাঙ্খিত পরিবেশ সৃষ্টি হলে পৌরসভা সেটি বন্ধ করার ব্যবস্থা নিবে মর্মে আদেশ দেয়। আদালতের এ আদেশ উপেক্ষা করে কে বা কারা বৃহস্পতিবার রাতে নির্মাণাধীন পাম্প ঘরের পাকা ওয়াল ভেঙ্গে ফেলে এবং মটর পাম্প সহ বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী চুরি করে নিয়ে যায়। এ খবর জানতে পেরে শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন কাউন্সিলর এবং পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারী বৃন্দ। এ ব্যাপারে গদাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য আনিছুর রহমান জানান, পানির আরেক নাম জীবন, পানি ছাড়া কোন জীব বেঁচে থাকতে পারে না। পৌরসভার এ ধরণের একটি মানবিক কাজে বাধা প্রদান কিংবা ক্ষতিসাধন কখনই কাম্য নয়। প্যানেল মেয়র শেখ মাহাবুবর রহমান রনজু জানান, এ ঘটনায় পৌরসভার পক্ষ থেকে থানায় মামলা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ওসি জিয়াউর রহমান জানান, অভিযোগ পেলে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ