বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৫৪ অপরাহ্ন

পাইকগাছায় পেঁপে ও কলাগাছ কেটে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

শাহারিয়ার কবির, পাইকগাছা / ১৯১
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২

পাইকগাছায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে  দু’ দফায় ২৫০ টি  ফলন্ত পেঁপে গাছ ও ৫০ টি  ফলন্ত কলাগাছ কেঁটে  দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখ করে  একাধিক অভিযোগ হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ঘটনাটি উপজেলার কাটিপাড়ায়  সর্বশেষ শুক্রবার সন্ধার পর।

অভিযোগের বাদী সুব্রত ভট্রচার্য্য জানান, আমাদের পৈত্রিক সুত্রে প্রাপ্ত সি এস এস এ ও বি আর এস রেকর্ডীও  সাড়ে ৩বিঘা জমিতে কলা ও পেঁপে গাছ রয়েছে। যা প্রায় গাছে ফল ধরেছে।কিন্তু  কাটিপাড়া গ্রামের সোবাহান মোড়লের ছেলে আলী আজগর মোড়ল(৩৮), হাসেম মোড়ল(৪০), সিরাজুল ইসলাম(৪২),ও আফসার গাজীর ছেলে খালেক গাজী(৫৫) সাথে উক্ত কিছু জমি নিয়ে  বিরোধ চলে আসছে। উক্ত বিরোধীয় সম্পত্তিতে তাদের কোন স্বার্থ, স্বত্ব কিছুই নাই।তারা সরকারী কর্মকর্তাদের ভুল বুঝিয়ে ডিসিআর গ্রহণ করে। অথচ উক্ত সম্পত্তিতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছপ।যে কারণে প্রতিপক্ষরা জমির দখল বুঝে নিতে না পেরে আমরা বাইরে থাকার সুযোগ নিয়ে তারা  দফায় দফায় আমাদের ফলন্ত গাছ রাতের অন্ধকারে কেটে ব্যাপক  ক্ষতি করে চলেছে। সর্বশেষ গত শুক্রবার সন্ধার পর  প্রতিপক্ষরা বাগানে ঢুকে পেঁপে বাগান হইতে অনুমান দু’ দফায় ফলন্ত  ২৫০ টি পেঁপে ও ৫০টি কলা গাছ কেটে প্রায়  লক্ষাধিক  টাকার ক্ষতিসাধন করে। আমি সংবাদ পেয়ে  ঘটনাস্থলে গিয়ে  গাছ কাটার কারন জানতে চাইলে প্রতিপক্ষরা আমাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করিতে থাকে। আমি তাদেরকে গালাগালি করিতে নিষেধ করিলে বিবাদীগন আমর উপর ক্ষিপ্ত হয়ে মারপিট করার জন্য উদ্যত হয়। এ সময় প্রতিপক্ষরা আমাকে খুন জখমের হুমকি প্রদান করে চলে যায়।এ ব্যাপারে আমি পাইকগাছা থানায় প্রতিকার ও নিরাপত্তার দাবী জানিয়ে উক্ত ৪ জনের নামে অভিযোগ দায়ের করি। পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জিয়াউর রহমান বলেন ফলন্ত ,পেঁপে ও কলা গাছ কেঁটে ক্ষতিসাধন করার ঘটনায় অভিযোগ হয়েছে। অভিযোগটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ