বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৫৮ পূর্বাহ্ন

দেবহাটায় ১৮০ জন ভূমি মালিকের বেদখলকৃত জমি উদ্ধারে মানববন্ধনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

সংবাদদাতা / ৯২
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২১

সাতক্ষীরা জেলার দেবহাটা উপজেলার খলিশাখালী এলাকার ভূমি সস্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও ১৮০ জন ভূমি মালিকের বেদখলকৃত জমি ও মৎস্য খামার ফিরে পাওয়ার দাবীতে ২৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভূমি মালিকগণ।এসময় ভূমি মালিকদের পক্ষে রোখসানা নাহিদ বলেন, কিছু পুলিশ প্রশাসনের কতিপয় কর্মকর্তা ও সুযোগ সন্ধানী নামধারী ভূমি সন্ত্রাসীদের যোগসাজেশে ১৮০ জন সাধারণ দরিদ্র মানুষদের মৎস্য খামার ও জমি দখল করে নিয়েছে স্থানীয় কিছু সন্ত্রাসী।


 তারা জানান, দেবহাটা উপজেলার পারুলিয়া মৌজার খলিশাখালী নামীয় ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি ভূমিহীন নামধারী অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা গত ১১ সেপ্টেম্বর ৩০টি খন্ডে বিভক্ত ১৩২০ বিঘা ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির মালিক ও কর্মচারীদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ঘেরের সকল বাসা দখল নিয়ে, মাছ লুটপাট এবং ঘেরে বাসা বাড়ি ভাংচুর করছে। তাৎক্ষনিকভাবে সাতক্ষীরা জেলার দেবহাটা থানায় বিষয়টি অবহিত করে প্রতিকার চাইলে দেবহাটা থানা কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। এমনকি উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে জমির রেকর্ডীয় মালিকগণ দেবহাটা থানায় মামলা করতে গেলে থানা কর্তৃপক্ষ কোন মামলা গ্রহণ না করে ফিরিয়ে দেয়। সকল দালিলিক প্রমাণ থাকা সত্ত্বেও পুলিশ প্রশাসনের নিষ্কৃয়তায় তারা ফিরে পাচ্ছে না তাদের জমি। মানববন্ধনে উপস্থিত জমির মালিকরা বলেন, আমরা ভুক্তভোগীরা ঐ অঞ্চলের সাধারণ জনগণ। আমরা অত্যন্ত ভীতিকর পরিস্থিতির মধ্যে বসবাস করছি এবং আমাদের প্রাণ সংশয়ের আশংকা করছি। এসব ভূমি সন্ত্রসীরা দির্ঘদিন ধরে সাধারণ মানুষের ভূমি জবরদখল করলেও পুলিশ প্রশাসন রহস্যজনকভাবে নিরব থেকেছে এবং তাদের গ্রেফতার করছে না। এর ফলে জনমনে আরো ভিতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।এসব ভূমি সন্ত্রাসীরা গত ৩ অক্টোবর ২০২১ অভিযোগের ভিত্তিতে আশাশুনি থানার দুইজন এ.এস.আইসহ পুলিশ কর্মকর্তা কিছু মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করতে গেলে এসকল ভূমিদস্যুরা তাদেরকে বেঁধে রাখে নির্যাতন চালায়। এসব দস্যুরা  আগ্নেয়াস্ত্রসহ বিভিন্ন ধরণের অস্ত্রে সজ্জে সজ্জিত হয়ে অবৈধভাবে দখলকৃত জমিতে শক্তির মহড়া প্রদর্শন করছে। তার পরেও তাদের গ্রেফতারে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী উদ্যোগ নেয়নি। ঐ এলাকার জবরদখলকারী ভূমি সন্ত্রাসীরা মাদক ব্যবসা, গুম, হত্যা, চোরাচালান, নারী ও শিশু পাচার, ডাকাতিসহ সকল অপকর্ম করে যা আমাদের সন্তানদেরসহ দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে আতঙ্কগ্রস্ত করে তুলছে।  জমির মালিকগণ আরো জানান যে, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক তাদের বিষয়টি অবগত হয়ে জমির কাগজপত্র পর্যবেক্ষণ করে জমির মালিকদের ন্যায্য অধিকারের পক্ষে কথা বলেছেন এবং ভূমি দস্যুদের দখলকৃত জমি থেকে চলে যেতে বললেও ভূমি দস্যুরা কর্ণপাত করেনি ও পুলিশ প্রশাসন এ ব্যাপারে যথাযথ উদ্যোগ না নিয়ে অদৃশ্য কারণে নিস্ক্রিয় থাকছে।  জমির মালিকরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে রেকর্ডীয় মালিকানাধীন প্রাপ্য জমি সন্ত্রাসীদের কবল থেকে ফেরত পাওয়ার জন্য আকুল আবেদন জানান।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ