বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৫৩ অপরাহ্ন

ডুমুরিয়ায় নির্বাচনে বিজয়ী হয়েই পরাজিত প্রার্থীসহ কর্মীদের ওপর হামলা, আহত ৮

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৭০
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২১

ডুমুরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী মেম্বর সিরাজুল ইসলামের সহিংসতায় পরাজিত  প্রার্থীসহ তার ৮/১০ জন কর্মী-সমর্থক মারপিটের শিকার হয়ে আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকাল ৭ টার দিকে উপজেলার সাহস ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে।


ভূক্তভোগী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সাহস  ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডটিতে (জয়খালী এলাকা)  সিরাজ সরদার সমর্থকদের আধিপত্য বেশি।উপজেলার সাহস ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বর্তমান ইউপি মেম্বর সিরাজুল ইসলাম সরদার বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে  পুনরায় মেম্বর নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে তারই চাচাতো ভাই কামরুল ইসলাম সরদার পরাজিত হন। ওই ঘটনার জের ধরে বর্তমান ইউপি মেম্বর সিরাজুল ইসলাম সরদার ও তার অন্য সহযোগীদের নেতৃত্বে শুক্রবার সকালে পরাজিত প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের বাড়ি ঘেরাও করে তাদের অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে পরাজিত প্রার্থী কামরুল ইসলাম সরদার ও তার অন্যান্য কর্মী-সমর্থকরা তাদের উদ্ধার করতে আসেএ সময় সিরাজুল ইসলামের সহযোগীরা ,প্রার্থী কামরুল ইসলামসহ অন্তত ৮/১০ জন কর্মী-সমর্থকদের উপর চাইনিজ কুড়াল, হাতুড়ি, লোহার রডসহ দেশীয় অস্ত্র-স্বস্ত্র নিয়ে হামলা করে আহত করে। 
আহতদের স্হানীয় লোকজন উদ্ধার করে ডুমুরিয়া উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।ভুক্তভোগী সিরাজুল শেখের স্ত্রী রেশমা বেগম বলেন, সিরাজ সরদারের এলাকায় খুব ক্ষমতা,আমাদের একটায় অপরাধ আমরা তালা মার্কায় ভোট দিয়েছি সেই জন্য সিরাজ সহ তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী আমাদেরকে মারধর করে বাড়িঘর ভাংচুর করে ঘরে তালা দিয়েছে এমনকি অবোলা জীব আমার ২ টা গরুকে ও মারপিট করেছে।পরবর্তীতে পুলিশ নিয়ে আমার স্বামী সন্তানকে থানায় নিয়ে গেছে। 

এ প্রসঙ্গে ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী মিজান শেখ  বলেন,আমাদের ওয়ার্ডের আমিসহ  ৪ জন প্রার্থী সদস্য পদে  নির্বাচন করেছে,নির্বাচনে জয় পরাজয় থাকবে, ৪ জনের মধ্য ১জন সিরাজ সরদার ফুটবল প্রতীকে নির্বাচিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে (১২ নভেম্বর) সিরাজ সরদার  ও তাঁর সমর্থকেরা পুলিশের উপস্থিতিতে আমার কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা করে আহত করা হয়েছে।আমরা এখন ঘর বাড়ি যেতে পারছি পুলিশ  সিরাজ মেম্বারের পক্ষ নিয়ে বিনা কারনে আমাদের যাকে পাচ্ছে ধরে থানায় নিচ্ছে, এমন কি পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে সিরাজ বাহীনির লোকজন এলাকায় তান্ডব চালাচ্ছে, অনেকের ঘর বাড়ী , মোটরসাইকেল ভাংচুর করেছে এবং আমাদের এলাকায় ২ জন গর্ববতী মহিলাদের ওপর নির্যাতন করেছে।আমরা এর সঠিক বিচার চাই। 


এ বিষয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ওবাইদুর রহমান বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ৯ জন কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তি আইনগত ব্যবস্হা নেয়া হবে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ