HEADLINE
ভারত থেকে চিকিৎসা নিয়ে দেশের ফেরার সময় ইমিগ্রেশনে পাসপোর্টযাত্রীর মৃত্যু দেবহাটা প্রেসক্লাবের বার্ষিক সভায় বর্তমান কমিটির মেয়াদ বর্ধিত; সদস্য অন্তর্ভূক্তির লক্ষ্যে উপ-কমিটি ঝাউডাঙ্গায় ৭১ সালের বালিয়াডাঙ্গা যুদ্ধের স্মৃতি চারণে আলোচনা সভা ৪র্থ বার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত কলারোয়ার যুগিখালীর ইউপি সদস্য মফিজুল সাংবাদিক আজিজুল’র মৃত্যুতে সাতক্ষীরা সাংবাদিক সমিতির গভীর শোক সাতক্ষীরায় ধানক্ষেতে ইঁদুর মারা বিদ্যুতের ফাঁদে জড়িয়ে দু’জনের মৃত্যু বাংলাদেশ ভারত এর বন্ধুত্ব বিশ্বে রোল মডেলঃ নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী সাতক্ষীরায় গোপন বৈঠক কালে জামায়াতে ইসলামীর ১০ মহিলা নেতাকর্মী আটক ঐতিহ্যবাহী গুড় পুকুরের মেলা উপলক্ষে মাধবকাটি বলফিল্ড মাঠে উৎসবের আমেজ পরীক্ষার সময় পরিবহন চলা নিয়ে নিশ্চিত নয় জবির পরিবহন পুল
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন

ক্ষিরার দাম কম থাকলেও প্রতিযোগিতার কমতি নেই বাজারে

হাবিবুল্লাহ বাহার / ৪০৯
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৮ আগস্ট, ২০২১

ক্ষিরায় একটি মুখরোচক খাবার, মাংসের সাথে ক্ষিরাই এর জুড়ি নেই। ভাত, মাছ, মাংশের স্বাদ বাড়াতে এই ফলটি এখন উচ্চবিত্ত পরিবার ও মধ্যবিত্তদের খাবারের তালিকায় অংশ নিয়েছে। কলারোয়ার পাশ্ববর্তী এলাকাগুলোতে টমেটোর পাশাপাশি ক্ষিরাই চাষটি কৃষকের কাছে বেশ জনপ্রিয়তা হয়ে উঠেছে।

মাছ চাষীরা ঘেরের পাড় ফেলে না রেখে সেটি তরকারী চাষের জন্য ব্যবহার করছেন। ক্ষিরাই, বরবটি, ভেন্ডি, উচ্চে ইত্যাদি তরকারি চাষ করে। মাছ চাষের পাশাপাশি অতিরিক্ত মুনাফা লুফে নিচ্ছেন তারা। তবে অন্য সব তরকারীর দাম ভালো থাকলেও বর্তমানে ক্ষিরাই এর দাম কম থাকায় কৃষক ও ব্যবসায়ীদের চরম লস(লোকশান) গুনতে হচ্ছে। তবে বাজারে চলছে চরম প্রতিযোগিতা, কোন ব্যবসায়ী কিনছেন১৬/১৭টাকা তো অন্য ব্যবসায়ী কিনছেন ১৮/২০ এমনি জোর প্রতিয়োগিতা চলছে বাজার গুলোতে। একই  বাজারে রয়েছেন ৩/৪জন প্রতিযোগী ব্যবসায়ী। নীলকন্ঠপুর, বাঁটরা, গড়েরডাঙ্গা বুইতা, আহসান নগর, রাইপুর,,

কুশোডাংগা, ঘরচালা, সেনেরগাঁতি, ফুলবাড়ি এই সকল এলাকা গুলোতে ঘুরে দেখা গেছে প্রচুর পরিমান ক্ষিরাই চাষ করেছে চাষীরা, গাছে ফলনও  ধরেছে প্রচুর।

কয়েকজন চাষীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, তারা মাছ চাষের পাশাপাশি ঘেরের পাড়কে তারা ফেলে না রেখে সবজি চাষের জন্য ব্যবহার করছেন। সেখানে তারা ক্ষিরাই, বরবটি, ভেন্ডি, করোল্লা, উচ্চে ইত্যাদি তরকারীর চাষ করছেন ফলনও ভালো হচ্ছে, তবে এ বছর ক্ষিরার বাজারে দর কম থাকায় চাষীরা দুশ্চিন্তা গ্রস্থ হয়ে পড়েছে।

ক্ষিরাই ব্যবসায়ী স্বদেশ মন্ডল এর সাথে কথা বলে জানা গেছে, তিনি প্রতিদিন গড়ে ৩/৪ শত বস্তা ক্ষিরাই ক্রয় করে ঢাকা পাঠান, প্রতি বস্তার ওজন ৪০কেজি। তিনি আরও জানান এবছর ক্ষিরার বাজার দর কম থাকায় মোটা অংকের লস গুনতে হতে পারে, তার পরে বাজারে চলছে ক্ষিরাই কেনার জোর প্রতিযোগিতা। অনিচ্ছা সত্ত্বেও বাজারে টিকে থাকার জন্য লোকশান করে বাজার থেকে ক্ষিরাই কিনতে হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, এ বছর কলারোয়াতে ১০হেক্টর জমিতে ক্ষিরাই এর আবাদ হয়েছে। ভালো ফলনও লক্ষণীয়, তবে গত বছরের তুলনায় এ বছর ক্ষিরাই এর আবাদ লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে বেড়ে দুই হেক্টর  জমিতে ক্ষিরাই এর আবাদ হয়েছে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ