HEADLINE
সাতক্ষীরার উৎপাদিত টমেটো যাচ্ছে রাজধানী’সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সাতক্ষীরা সীমান্তে অপরাধ দমনে বিজিবি ও বিএসএফ এর পতাকা বৈঠক ঝাউডাঙ্গা হাইস্কুল জামে মসজিদের ওযুখানা নির্মাণ কাজ উদ্বোধন শ্যামনগরে বিদ্যুৎস্পর্শে কৃষকের মৃত্যু কাশ্মিরি ও থাইআপেল কুল চাষে সফল সাতক্ষীরার মিলন ঝাউডাঙ্গা সড়কে বাস উল্টে ১০জন আহত ঝাউডাঙ্গায় জমকালো আয়োজনে শুরু হচ্ছে পৌষ সংক্রান্তি মেলা কালিগঞ্জে শীতার্ত মানুষের পাশে ”বিন্দু” মাদ্রাসা শিক্ষক শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে ফের ছাত্র বলাৎকারের অভিযোগ স্বামী বিবেকানন্দ দর্শন আমাদের মুক্তির পথ : সাতক্ষীরায় ১৬০তম জন্মবার্ষিকী উৎসবে আলোচকরা
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫৩ অপরাহ্ন

কেশবপুর লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও পাটের আবাদ বেড়েছে ২০০ হেক্টর জমিতে

উৎপল দে, কেশবপুর (যশোর) / ১৪৯
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২২

যশোরের  কেশবপুর সোনালি আঁশ পাট চাষ ভালা ফলন হওয়ায় স্বপ দেখছন চাষীরা। অনুকল আবহাওয়া ও পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাতর কারণ চলতি মসুম এ উপজেলায় পাটের বাম্পার ফলন হয়েছ। গত বছর দাম ভালা পাওয়ায় এবার লক্ষ্য মাত্রার থেকে ২১০ হেক্টর জমিত বেশি হয়েছ পাটর আবাদ। কি খাল-বিল পানি না থাকায় পাট জাগ দিত হিমশিম খাছন কৃষকরা।

উপজলা কষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রীমা আক্তার সাংবাদিকদের  বলেন , কেশবপুর ৫ হাজার ১০ হেক্টর জমিতে চলতি বছর পাটর আবাদ করা হয়েছে। লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়ছিল ৪ হাজার ৪৮ হেক্টর। গত বছর এ উপজলায় পাট আবাদ হয়েছিল ৪ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে। এবার রবি-১ জাতের লাল রঙ এর পাটের আবাদ বেশি করেছেন চাষীরা। এর মধ্য মজিদপুর, ত্রিমােহিণী, সাতবাড়িয়া, মঙ্গলকাট, হাসানপুর, সাগরদাঁড়ি ইউনিয়ন ও কশবপুর সদর ইউনিয়ন পাটর আবাদ বশি হয়ছ। ইতিমধ্য কয়েকটি এলাকায় পাট কাটা শুরু করছেন কৃষকরা। পর্যাপ্ত বষ্টিপাত না হওয়ায় খাল-বিল পানির অভাব পাট জাগ দিত দুশ্চিÍায় পড়েছেন কৃষকরা।

উপজলার মজিদপুর ইউনিয়নর বাগদহা গ্রামের কৃষক ওলিয়ার রহমান জানান, ‘গত বছর বাজার পাটের দাম বেশি দেখেে এবার প্রথম বার ১ বিঘা ১০ কাটা জমিত বীজ বুনছিলাম। ভাল ফলন হওয়ায় ২৩ থেকে ২৫ মণ পাট হতে পারে। পাট আবাদ করত এ পর্যন্ত ১৫ হাজার ৮০০ টাকা খরচ হয়েছে। প্রতি মণ পাট ৩ হাজার টাকা করে বিক্রি করতে পারল ভালই লাভবান হবে বলে জানান। কি খাল-বিল পানি না থাকায় পাট জাগ দিত কষ্ট হচ্ছে বলে জানান।

প্রতাপপুর গ্রামর কষক এরশাদ আলী বলন, ‘বিল ৫ বিষা জমিত লাগানা পাট গত বুধবার থক কাটা শুরু করছি। খত পাটর আবাদ ভালা হওয়ায় দাম আগর মতা থাকল ভালাই লাভ হব এবার।থ একই গ্রামর কষক ফজলু বিশ্বাস জানান, ‘গত বছর কুষ্টা (পাট) বচ ভালাই লাভ করছি। এ আশায় এই বার ৫ বিঘা জমিত লাগাইছি। খাল-বিল পানির অভাব পাট জাগ দিত পারছি না।

এ ব্যাপার উপজলা কষি কর্মকর্তা ঋতুরাজ সরকার সাংবাদিকদের  বলেন, পাটের বাজারমূল্য বেশি হওয়ায় এ উপজেলার চাষীরা পাট আবাদ ঝুঁকছেন। অনুকল আবহাওয়া ও পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাতের কারণে পাটর বাম্পার ফলন হয়েছে। বিগত বছরর ন্যায় এবারও আশা করছি কৃষকরা পাট ভালো দাম পাবেন। তব খাল-বিল পানির অভাব পাট জাগ দিত দুশ্চিÍায় পড়েছন কৃষকরা।#


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ