কুল্যায় অসহায় মর্জিনার পরিবার ষড়যন্ত্রের শিকার

কুল্যায় অসহায় মর্জিনার পরিবার ষড়যন্ত্রের শিকার

আশাশুনি প্রতিনিধিঃ আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নে অসহায় মর্জিনা খাতুন ও তার সন্তানরা ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে বিপদগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। কুমতলবধারীদের প্ররোচনায় পরিবারটি দিনকে দিন অশান্তির মধ্যে ঢুকে যাচ্ছে।

থানায় দাখিলকৃত অভিযোগ ও অসহায় পরিবারের সদস্যরা জানায়, কুল্যা ইউনিয়নের মহাজনপুর গ্রামের মৃত রাজা উল্লাহ সরদারের পুত্র ইয়াহিয়া সরদারের সাথে ৩৯ বছর আগে মর্জিনা খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের ২টি পুত্র ও ১টি কন্যা সন্তান আছে। মর্জিনার অজান্তে তার স্বামী গত ১৯ ফেব্রæয়ারি ফিরোজা খাতুন নামে এক মহিলাকে ২য় স্ত্রী হিসাবে গ্রহন করে। এনিয়ে পারিবারিক কলহের এক পর্যায়ে লিটন ও আলী রাজের কুপরামর্শ ও মদদে ১ম স্ত্রী ও তার সন্তানদের উপর নানাভাবে নির্যাতন ও ঠিকভাবে ভরণ পোষণ দেওয়া বন্ধ করে স্বামী। ১ম স্ত্রী বাধ্য হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করে। পুলিশ উভয় পক্ষকে নিয়ে বসাবসির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এদিকে তাদের আত্মীয় স্বজন ও পরিবারের অন্য সদস্যরা আপোষ মিমাংসার উদ্যোগ নিলেও লিটন ও আলী রাজের কুপরামর্শে ইয়াহিয়া মনস্থির করতে বাধাগ্রস্ত হচ্ছেন। ইয়াহিয়ার সন্তানরা আকুতি করে প্রশ্ন করেন, কুপরামর্শ্বে স্ত্রী-সন্তানদের সাথে ইয়াহিয়ার দূরত্ব বৃদ্ধিকারীরা তার পিতার কোন অঘটন ঘটলে পুরন করতে পারবে কি? তারা প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email
এই সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন