বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:১৯ অপরাহ্ন

কুঁন্দুড়িয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

আশাশুনি ব্যুরো / ৭৩
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২১

আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের ২০নং কুঁন্দুড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুর্শিদা খাতুনকে অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে। রবিবার (২১ নভেম্বর) বেলা ১১টায় বিদ্যালয়ের সামনের সড়কে স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটি, অভিভাবক, গন্যমান্য ব্যডক্ত ও এলেকাবাসী এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।


মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন, ইউপি সদস্য মতিয়ার রহমান, ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি উত্তম কুমার সরকার, সদস্য তাছলিমা খাতুন, আদর আলি, গণেশ চন্দ্র সরকার, মুনছুর আলী প্রমুখ। বক্তাগণ বলেন, প্রধান শিক্ষক ক্ষমতার অপব্যবহার, স্বেচ্ছাচারিতা, সরকারি সম্পত্তি লুট, এসএমসি গঠনের নামে পকেট কমিটি গঠন, ষড়যন্ত্র ও দুর্নীতি, সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাৎ, সংখ্যালঘুদের কটুক্তিসহ তার লাঠিয়াল বাহিনী দিয়ে কমিটির বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, কমিটির সহ-সভাপতিসহ অন্যদের হুমকি দিয়ে আসছেন। শিক্ষক শিক্ষাদান ও দেশ গড়ার কারিগর হয়ে যদি দুর্নীতি এবং স্বেচ্ছাচারিতার মাধ্যমে স্কুলের অবকাঠামোগত, সুষ্ঠু পরিাচলনা ও শিক্ষাদানের ক্ষেত্রে চরম দুরবাস্থায় পরিণত করেছেন। স্থানীয় শান্তি শৃংখলা ও বিদ্যালয়ের শিক্ষার সঠিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে প্রধান শিক্ষকের দ্রæত অপসারণ জরুরী হয়ে উঠেছে। তিনি কমিটি ও এলাকার মানুষের সাথে প্রায় দেড় বছর প্রতারনা করে যাচ্ছেন। তিনি কমিটি মানেন না, উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে মানেন না, আদালতের রায় মানেন না, বরং একনায়ক তান্ত্রিকভাবে স্কুলে নিয়মিত গমন না করে, স্কুল পরিচালনার ক্ষেত্রে জবাবদিহিতা বিঘœসৃষ্টি করে যথেচ্ছা চালচলন, হাইকোর্ট, জজ কোর্টে মামলা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। আজ (রবিবার) স্কুলের কমিটির মিটিং থাকলেও তিনি কমিটির কাউকে কিছু না বলে স্কুল ত্যাগ করে চলে গেছেন। তিনি খামখেয়ালীপনা ও নিজের ইচ্ছামত স্কুলের অর্থ ও মালামাল তছরুফ করে যাচ্ছেন। কিছুদিন আগে স্কুলের ৮৪ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন, আমরা সে টাকা উদ্ধার করেছি। এ ধরনের দুর্নীতিবাজ স্বেচ্ছাচারি শিক্ষক আমাদের স্কুলে থাকেলে এই স্কুলটা ধ্বংস হয়ে যাবে। তার ঐদ্ধত্যপূর্ণ আচরণে এলাকার মানুষ ফুসতে শুরু করেছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের শঙ্কা করে তারা দ্রæত তাকে অপসারণে দাবী জানান।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ