HEADLINE
ভারত থেকে চিকিৎসা নিয়ে দেশের ফেরার সময় ইমিগ্রেশনে পাসপোর্টযাত্রীর মৃত্যু দেবহাটা প্রেসক্লাবের বার্ষিক সভায় বর্তমান কমিটির মেয়াদ বর্ধিত; সদস্য অন্তর্ভূক্তির লক্ষ্যে উপ-কমিটি ঝাউডাঙ্গায় ৭১ সালের বালিয়াডাঙ্গা যুদ্ধের স্মৃতি চারণে আলোচনা সভা ৪র্থ বার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত কলারোয়ার যুগিখালীর ইউপি সদস্য মফিজুল সাংবাদিক আজিজুল’র মৃত্যুতে সাতক্ষীরা সাংবাদিক সমিতির গভীর শোক সাতক্ষীরায় ধানক্ষেতে ইঁদুর মারা বিদ্যুতের ফাঁদে জড়িয়ে দু’জনের মৃত্যু বাংলাদেশ ভারত এর বন্ধুত্ব বিশ্বে রোল মডেলঃ নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী সাতক্ষীরায় গোপন বৈঠক কালে জামায়াতে ইসলামীর ১০ মহিলা নেতাকর্মী আটক ঐতিহ্যবাহী গুড় পুকুরের মেলা উপলক্ষে মাধবকাটি বলফিল্ড মাঠে উৎসবের আমেজ পরীক্ষার সময় পরিবহন চলা নিয়ে নিশ্চিত নয় জবির পরিবহন পুল
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন

কামার বায়সায় গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা!

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৯১
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১

জমি-জমা নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বাঁশদহা ইউনিয়নের ইসরাইল সরদার নামে এক বৃদ্ধ কৃষকের আমবাগানের অধিকাংশ আমগাছের চারা গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে। গত শুক্রবার(২৩ জুলাই) জুম্মার নামাজের সময় ইউনিয়নের কামারবায়সা গ্রামে এঘটনা ঘটে। এঘটনায় ভূক্তভোগী কৃষক ইসরাইল সরদারের ছেলে অহিদুল ইসলাম বাদি হয়ে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সরেজমিনে গেলে স্থানীয়রা জানান, জমিসংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্রকরে ইসরাইল সরদারের সাথে একই এলাকার মৃত হামিদুল্লাহ সরদারের ছেলে আব্দুর রউফ ও আব্দুল হাকিমদের দীর্ঘদিন ধরে মনোমালিন্য চলছিলো। এর একপর্যায়ে শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় আব্দুর রউফসহ অজ্ঞাত ৩/৪জন ধারালো অস্ত্র নিয়ে ইসরাইলের আমবাগানের অধিকাংশ আমগাছের চারা কেটে দেয়। এসময় ইসরাইল সরদার দেখতে পেলে তারা সেখান থেকে দ্রুত পালিয়ে যান। এবিষয়ে ইসরাইল সরদার বলেন, বসতভিটার জমিকে কেন্দ্রকরে আব্দুর রউফ ও তার সহদর ভাই আব্দুল হামিকদের সাথে বিরোধ ছিল। তবে স্থানীয় পর্যায়ের সালিশনামাসহ আদালতের রায় আমাদের পক্ষে থাকাই তারা বিভিন্ন সময় আমাদেরকে হুমকী ধামকী দেওয়ার পাশাপাশি আমাদের ফসলের ক্ষয়ক্ষতিসহ আমার ছেলেকে প্রাণনাশের চেষ্টা চালিয়েছিল যাতে আমরা তাদের দাবিকৃত জমিটি ছেড়ে দেয়। আর এসম্পর্কিত বিষয়ে ২০১১ সালে তাদের বিরুদ্ধে একটি এজাহারও দায়ের করা হয় জানিয়ে তিনি বলেন, কামারবায়সা বটতলার মোড়ের দক্ষিণপাশে আমার ২২কাটা জমির উপরে বছর দু’য়েক আগে একটি আমবাগান তৈরী করি। আমবাগানের পাশাপাশি ওই জমিতে বিভিন্ন সবজিরও চাষ করতাম। তবে বসতবাড়ি থেকে আমবাগানটি কিছুটা দুরে অবস্থিত হওয়ায় রউফ বাহিনী বিভিন্নভাবে ওই জমির আমগাছসহ চাষকৃত ফসল নষ্ট করে দিতো। নিরুপায় হয়ে আব্দুর বারী নামে এক ব্যক্তির কাছে সবজি চাষের জন্য বাৎসরিক ভাবে ওই জমিটা লিজ দেয়। তবে ওই জমির ভিতরে তাদের দেড় কাঠা জমি রয়েছে বলে দাবি করে। এনিয়ে একাধিকবার বসাবসি হলেও তারা কোনপ্রকার কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। ফলে কয়েকবছর পরিচর্যার মাধ্যমে ক্রমে পরিপুষ্ট হয়ে উঠা ২২কাঠা জমিতে রোপনকৃত চারা গাছের অগ্রভাগ নিধন করেছে রউফ বাহিনী। এতেকরে আর্থিকভাবে প্রচুর ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন বলে দাবি করেন তিনি। এঘটনায় যাতে ন্যায় বিচার পান সেকারনে জেলা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট সকলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভূক্তভোগী কৃষকসহ তার পরিবারের সদস্যরা।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ