বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৪৯ পূর্বাহ্ন

কলারোয়ায় ছাত্রনেতা জনির মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারে মানববন্ধন

কলারোয়া সংবাদদাতা / ৯৪
প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২১

কলারোয়ায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা  মারুফের উপর হামলায় মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে সাবেক ছাত্রনেতা শেখ মারুফ আহমেদ জনির উপরে হামলা ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানিয়েছেন উপস্থিত এলাকাবাসী।  একই সাথে হামলাকারিদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি ও জানানো হয়েছে মানববন্ধন


রোববার সকাল ১১টার দিকে উপজেলার জালালাবাদ ইউনিয়নের ইউনিয়ন পরিষদের সামনে নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান নিশানের বিরুদ্ধে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। মানববন্ধনে সাবেক উপজেলা  ছাত্রলীগের সহসভাপতি শেখ মারুফ আহমেদ জনির উপরে হামলা ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারে ব্যানার ও প্লাকাডে তদন্ত সাপেক্ষে  মিথ্যা মামলা  প্রত্যাহারের দাবী জানানো হয়।এলাকার কয়েকশত  নারী পুরুষ এই মানববন্ধনে অংশ গ্রহন করে।সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন স্থানীয় জালালাবাদ গ্রামের শফিকুল ইসলামের স্ত্রী ফরিদা খাতুন, আবুল হোসেন মোড়লের পুত্র হাসানুজ্জামান ও প্রতিবন্ধী আব্দুল খালেক বলেন- ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ব্যাডমিন্টন খেলাকে কেন্দ্র করে একটু ঝামেলা হয়েছিল।  সেই ঝামেলা মিটাতে ছত্রনেতা জনিকে মিমাংসার নামে  মোবাইল ফোনে (০১৭৭৯৮৭৪৭২১) ডেকে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে পরিষদে আটকে মারপিট করা হয়।এখানে চৌকিদারদের উপর হামলা, ভাতার চাল বিতরনে কোন প্রকার বাধা সৃষ্টি ও হামলার কোন ঘটনা এখানে ঘটেনি।এর আগে গত ৭ নভেম্বর জালালাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ঢুকে সরকারী কাজে বাধা, গ্রাম পুলিশের মারপিট ও ভাতার চাল ছিনতাইয়ের অভিযোগে কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি স্হানীয় জালালাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান কলারোয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি শেখ মোসলেম আহমেদ’র পুত্র শেখ মারুফ আহমেদ জনি সহ ১০ জনের নামে কলারোয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে। মামলার বাদী ছিলেন জালালাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ মাসুম বিল্লাহ। মামলা রেকর্ড হওয়ার  আগে ছাত্রনেতা শেখ মারুফ আহমেদ জনিকে বেধড়ক পিটিয়ে জখম করে মানববন্ধনে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান ও তার সাঙ্গ পাঙ্গরা। আহত জনিকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছিল।বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন।আজ এই শান্তিপূর্ন মানববন্ধন থেকে ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত করে জনির উপর হামলাকারীদের বিচার ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্য কলারোয়া থানা পুলিশসহ সকল প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ