HEADLINE
সাতক্ষীরার উৎপাদিত টমেটো যাচ্ছে রাজধানী’সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সাতক্ষীরা সীমান্তে অপরাধ দমনে বিজিবি ও বিএসএফ এর পতাকা বৈঠক ঝাউডাঙ্গা হাইস্কুল জামে মসজিদের ওযুখানা নির্মাণ কাজ উদ্বোধন শ্যামনগরে বিদ্যুৎস্পর্শে কৃষকের মৃত্যু কাশ্মিরি ও থাইআপেল কুল চাষে সফল সাতক্ষীরার মিলন ঝাউডাঙ্গা সড়কে বাস উল্টে ১০জন আহত ঝাউডাঙ্গায় জমকালো আয়োজনে শুরু হচ্ছে পৌষ সংক্রান্তি মেলা কালিগঞ্জে শীতার্ত মানুষের পাশে ”বিন্দু” মাদ্রাসা শিক্ষক শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে ফের ছাত্র বলাৎকারের অভিযোগ স্বামী বিবেকানন্দ দর্শন আমাদের মুক্তির পথ : সাতক্ষীরায় ১৬০তম জন্মবার্ষিকী উৎসবে আলোচকরা
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৫৪ অপরাহ্ন

কলারোয়ায় কাজ শেষের আগেই হাত দিয়ে তোলা যাচ্ছে রাস্তার কার্পেটিং

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৩৫৬
প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১

সাতক্ষীরার কলারোয়া টু সরসকাটি বাজার অভিমুখে সড়ক নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। হাতের টানেই উঠে যাচ্ছে সড়কের কার্পেটিং। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

কলারোয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান লাল্টু জানান, কলারোয়া সদর থেকে সরসকাটি অভিমুখে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের আওতায় সড়কের প্যাকেজ নির্মাণকাজ চলছে। কার্পেটিং কাজটি চলছে ৯০ লাখ টাকার। এ কাজে ব্যাপক অনিয়ম করা হচ্ছে। সড়কের দেওয়া কার্পেটিং উঠে যাচ্ছে হাতের টানে। রাস্তা পরিষ্কার না করে কাদামাটির ওপর দেওয়া হচ্ছে পিচ। এ কারণে এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, সওজ বিভাগের কোনো জবাবদিহি নেই। স্থানীয়দের দেওয়া খবরে কলারোয়া সদরের টিএনটি কার্যালয়ের সামনে ও কলাগাছি মোড়ে গেলে দেখা যায় সড়কের পিচগুলো রুটির মতো উঠে যাচ্ছে। নির্মাণাধীন সড়কে ঠিকাদার বা সওজ বিভাগের কোনো কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি। মোবাইল ফোনে দুর্নীতি ও অনিয়মের বিষয়টি সওজের কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, দুর্নীতি ও অনিয়মের মধ্য দিয়ে কাজটি করা হচ্ছে। সড়কে পিচঢালাই দেওয়ার আগে ব্রাশ বা কোদাল দিয়ে সড়ক ভালোভাবে পরিষ্কার করার কথা থাকলেও সেটি করা হচ্ছে না। দায়সারা কাজ করছে ঠিকাদার। এতে সহযোগিতা করছে সড়ক ও জনপদ বিভাগের কর্মকর্তারা। সড়কটির নির্মাণকাজ তত্ত্বাবধান করছেন সওজের উপসহকারী প্রকৌশলী তরিকুল ইসলাম। সড়কে নির্মাণকাজে অনিয়মের বিষয়ে জানতে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোনকল রিসিভ করেননি। সাতক্ষীরা সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মীর নিজামউদ্দীন আহম্মেদ বলেন, কলারোয়া সদর থেকে বসন্তপুর পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার সড়কে ৯০ লাখ টাকার কার্পেটিং সিলকোটের কাজ চলছে। মূলত সড়কটি চলাচল উপযোগী করা হচ্ছে। তিনি বলেন, যারা অনিয়মের অভিযোগ তুলছেন, তারা চাঁদা চেয়েছিলেন। সেটি না পেয়েই এই অভিযোগ তোলা হচ্ছে। তবু অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে প্রতিনিধি পাঠানো হয়েছে।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ