বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ১২:২০ অপরাহ্ন

আশাশুনিতে প্রতিবন্ধী শিশু ও তার মা-বাবাকে মারপিটের প্রতিবাদে মানববন্ধন

জি. এম. মুজিবুর রহমান, আশাশুনি / ২৬৪
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার কুল্যায় ইউপি চেয়ারম্যানের হাতে প্রকাশ্যে এক প্রতিবন্ধী শিশু ও তার মা-বাবাকে মারপিট ও মুখখিস্তীর প্রতিকারের দাবীতে মানববন্ধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকালে কুল্যা ইউনিয়নের কাদাকাটি হাজীরহাটে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।


কুল্যা ইউনিয়নের আরার গ্রামের আল মামুনের স্ত্রী ফারজানা খাতুন ও তার স্বামী ২৩ আগষ্ট তাদের প্রতিবন্ধী ও রোগাক্রান্ত শিশুকে নিয়ে সাহায্যের জন্য ইউপি চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে গিয়েছিলেন। “বাচ্চা নিয়ে না খেয়ে আছি, আমাদের কিছু ব্যবস্থা করেন।” এমন কথা বলার সাথে সাথে চেয়ারম্যান চৌকিদার দিয়ে তাদেরকে ঘর থেকে বের করে দিতে হুঙ্কার দেন। এরপর নিজেই চেয়ার থেকে উঠে গিয়ে বাচ্চা কোলে পিতা মামুনকে ও বাচ্চাকে মারপিট করেন। স্ত্রী ফারজানা বাচ্চাকে ঠেকাতে গেলে তাকেও ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়। এরপর “কোথাও যেয়ে কিছু করার থাকলে করে নিস” বলে দূরদূর করে তাদেরকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। চেয়ারম্যানের অতর্কিত আক্রমন, মুখ খিস্তি করে গালিগালাজের ঘটনা দেখে উপস্থিত লোকজন হতবাক হয়ে যায়। প্রতিবন্ধী শিশু ও পিতা-মাতার ক্রন্দনে এলাকার বাতাস ভারি হয়ে ওঠে। এব্যাপারে ওসি, ইউএনও, উপজেলা চেয়ারম্যান, জেলা প্রশাসকসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রতিকার প্রার্থনা করে আবেদন করেন লাঞ্চিতা ফারজানা বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু এখনো কোন প্রতিকার বা কোন কার্যক্রম না দেখে হতাশ হয়ে পড়েছেন জন্ম থেকে প্রতিবন্ধী আড়াই বছর বয়সী পুত্র আশরাফুল আলম ফাইমকে নিয়ে পরিবারটি।


অসহায় পরিবার ও এলাকার ক্ষুব্ধ সাধারণ মানুষ নিন্দনীয় ঘটনার সাথে জদিত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কার্যকরন পদক্ষেপ গ্রহনের জোর দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছেন। মানববন্ধনে অংশ নেওয়া নির্যাতিতা ফারজানা, তার স্বামী আল মামুন, এলাকার আঃ কুদ্দুছ, আফাজদ্দিন মালী, ইউনুছ মালী, রোকনুদ্দীন উজ্জলসহ প্রতিবাদী জনতা প্রশাসন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।


এই শ্রেণীর আরো সংবাদ